ভারতীয় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহান। এবারের ভারতের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে এতে অংশ নিবেন এ দুই অভিনেত্রী।

সোমবার লোকসভা নির্বাচনের জন্য রাজ্যের ৪২টি আসনে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। সেই তালিকায় রয়েছেন নুসরাত-মিমি। ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে।

সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, যাদবপুর থেকে মিমি চক্রবর্তী ও বসিরহাট থেকে নুসরত জাহানকে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সুচিত্রা সেনের মেয়ে অভিনেত্রী মুনমুন সেন বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া আসনের সাংসদ। এবার এ আসনে থেকে লড়বেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ সুব্রত মুখার্জি। আর মুনমুন সেনকে আসানসোল থেকে প্রার্থী করা হচ্ছে। ঘাটাল, বীরভূম আসনে এবারো যথাক্রমে টিকিট পেয়েছেন চিত্রনায়ক দেব ও অভিনেত্রী শতাব্দী রায়।

মঞ্চ-টেলিভিশন নাটকে অভিনয় করে খ্যাতি লাভ করেন মিমি চক্রবর্তী। ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় নিজের শক্ত জায়গার কথা জানান দেন এই অভিনেত্রী। পরবর্তী সময়ে ‘যোদ্ধা-দ্য ওয়ারিয়র’, ‘খাদ’, ‘জামাই ৪২০’, ‘পোস্ত’, ধনঞ্জয়’, ‘টোটাল দাদাগিরি’-এর মতো বেশকিছু দর্শকপ্রিয় সিনেমা উপহার দেন মিমি।

অন্যদিকে ‘শত্রু’ সিনেমার মাধ্যমে টলিউডে পথচলা শুরু করেন নুসরাত জাহান। তার অভিনীত দ্বিতীয় ও তৃতীয় সিনেমা ‘খোকা ৪২০’ ও ‘খিলাড়ি’-এর মাধ্যমে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নেন। অভিনয় ক্যারিয়ারের সাত বছর পার করছেন তিনি। ইতোমধ্যে তার অভিনীত ১৮টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। বাংলাদেশের শাকিব খানের সঙ্গে ‘নাকাব’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন নুসরাত। গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর মুক্তি পায় সিনেমাটি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here