মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসিত করার কোনো মানে হয় না। এতটা গুরুত্ব পাওয়ার যোগ্য তিনি নন। ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন পেলোসি।

ডেমোক্রেটিক দলের এই স্পিকার বলেন, নীতি-নৈতিকতা, চিন্তা ও যুক্তির দিক থেকে ট্রাম্প আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হওয়ার যোগ্য নন। কিন্তু ট্রাম্পকে অভিশংসন দেশকে বিভক্ত করবে। তার মতে, সত্যি সত্যি বড় ধরনের অনিয়ম বা বেআইনি কাজ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত এবং উভয় দলের কাছ থেকে উদ্যোগ না আসা পর্যন্ত আমাদের অভিশংসনের পথ অনুসরণ করা ঠিক হবে না।

ট্রাম্পকে অভিশংসনের দাবি জোরদার হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ কথা বললেন। গত নভেম্বরে বিজয়ী হয়েছেন—এমন কংগ্রেস সদস্যদের অনেকেই অবিলম্বে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের দাবি তুলেছেন। মিশিগান থেকে নির্বাচিত মুসলিম কংগ্রেস সদস্য রাশিদা তালিব ইতিমধ্যেই এ উদ্দেশ্যে একটি খসড়া প্রস্তাব প্রতিনিধি পরিষদে উত্থাপনের কথা বলেছেন। এই প্রস্তাবের পক্ষে প্রতিনিধি পরিষদে পর্যাপ্ত সমর্থন থাকলেও সিনেটে গিয়ে তা আটকে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওয়াশিংটন পোস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেছেন, বর্ণবাদী ও অভিবাসনবিরোধী অবস্থানের কারণে কারও কারও হয়তো ট্রাম্পকে পছন্দ হতে পারে। কিন্তু এ কথা ভুললে চলবে না, এই প্রেসিডেন্ট চান না, আমাদের শিশুরা বিশুদ্ধ বায়ু গ্রহণ করুক। অথবা তারা বিশুদ্ধ পানি পান করুক বা বিশুদ্ধ খাদ্য গ্রহণ করুক। আমাদের দায়িত্ব হলো এসব জরুরি কাজের জন্য প্রতিদিন লড়াই চালিয়ে যাওয়া।

ট্রাম্পের এ ধরনের নীতির বিরুদ্ধে সরাসরি অবস্থান নিলেও অভিশংসন চান না ন্যান্সি পেলোসি। তবে ডেমোক্রিটিক পার্টির বেশ কয়েক জন সদস্য ট্রাম্পের অভিশংসনের ক্ষেত্র তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here