প্রথম লেগে প্রতিপক্ষের মাঠে ৩-২ গোলে জয় নিয়ে ফিরেছিল ম্যানচেস্টার সিটি। ঘরের মাঠে ফিরতি লেগে খুনে হয়ে উঠে সিটিজেনরা। আগুয়েরো, সানে ও জেসুসদের গোল উৎসবে দাপুটে জয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে পেপ গার্দিওলার দল।

গতকাল রাতে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগের জন্য শালকেকে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে আতিথ্য দেয় ম্যানসিটি। নিজেদের মাঠে প্রতিপক্ষের জালে গোল উৎসবের রাতে ৭-০ ব্যবধানে জয় পেয়েছে স্বাগতিকরা। তাতে দুই লেগ মিলে ১০-২ গোলে শেষ আটে পৌছে সিটিজেন শিবির।

ঘরের মাঠে ম্যানসিটির উৎসবের দিনে জোড়া গোল করেন সার্জিও আগুয়েরো। একটি করে গোল করেন রাহিম স্টার্লিং, লেরয় সানে, বের্নার্দো সিলভা, গাব্রিয়েল জেসুস ও ফিল ফোডেন।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া ম্যাচে ৩৫তম মিনিটে আগুয়েরোর পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায় সিটি। সিলভাকে ডি-বক্সে জেফরি ব্রুমা ফেলে দিলে ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। তিন মিনিট পর ব্যবধানে দ্বিগুণ করেন আর্জেন্টিনার তারকা স্ট্রাইকার।

৪২তম মিনিটে আলেকসান্দর জিনচেনকোর পাস থেকে ব্যবধান ৩-০ করেন জার্মান মিডফিল্ডার সানে।

সানের বাড়ানো বলে ৫৬তম মিনিটে ব্যবধান ৪-০ করেন স্টার্লিং। লাইন্সম্যান অফসাইডের পতাকা তুললেও রেফারি ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোলের বাঁশি বাজান।

সানের আরেকটি দুর্দান্ত পাসে ৭১তম মিনিটে পঞ্চম গোলটি করেন সিলভা। সাত মিনিট পর জার্মান মিডফিল্ডারের দুর্দান্ত থ্রু পাসে জাল খুঁজে নেন খানিক আগে বদলি নামা ফোডেন।

৮৪তম মিনিটে দলের সপ্তম গোলটি করেন আগুয়েরোর জায়গায় বদলি নামা গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ডি-বক্সের বাইরে থেকে বুলেট গতির বাঁকানো শটে ঠিকানায় বল পাঠান তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

চলতি মৌসুমে এ নিয়ে ১০ বার পাঁচ বা তার বেশি গোল করল সিটি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সবশেষ চার আসরে এনিয়ে তৃতীয়বার শেষ আটে গেল দলটি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here