সাদিও মানের জোড়া গোলে বায়ার্ন মিউনিখকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে উঠেছে লিভারপুল। বুধবার বাংলাদেশ সময় রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে ৩-১ গোলের জয় পায় ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা। দলটির হয়ে অন্য গোলটি করেন ভার্জিল ফন ডাইকের। এরআগে অ্যানফিল্ডে দুই দলের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচটি গোল শূন্য ড্র হয়েছিল।

বুধবারের হারে প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলে লিভারপুলের বিপক্ষে জয় অধরাই থেকে গেল বায়ার্ন মিউনিখের। আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় অবশ্য প্রথম সুযোগ পেয়েছিল ইতালির দলটিই। কিন্তু দশম মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও সুযোগ হাতছাড়া করেন রবের্ত লেভানদফস্কি। ঠিকমতো শটই নিতে পারেননি এই ফরোয়ার্ড। এরপর স্বাগতিক শিবিরে আক্রমণের গতি বাড়ায় লিভারপুল। তাতে বেশ জমে ওঠে ম্যাচ। এরমধ্যে ২৬তম মিনিটে অতিথিদের এগিয়ে দেন সাদিও মানে। মাঝমাঠ থেকে ফন ডাইকের উড়ে আসা বল পেয়ে ফেরেইরা দে সোসাকে কাটিয়ে গোলরক্ষক মানুয়েল নয়ারকে এড়িয়ে ফাঁকা জালে বল পাঠান তিনি।

বিরতির আগে অবশ্য অনেকটা ভাগ্যের ছোঁয়ার গোলের দেখা পায় বায়ার্ন। সের্গে জিনাব্রির নিচু ক্রস পোস্টের পাশ দিয়ে বাইরে পাঠানোর চেষ্টায় জালে পাঠিয়ে দেন জোয়েল মাতিপ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে এগিয়ে যাওয়ার নেশায় মেতে ওঠে লিভারপুল। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে জেমস মিলনারের দারুণ কর্নারে সবার উঁচুতে লাফিয়ে চমৎকার হেডে বল জালে পাঠান ফন ডাইক। এর ৬ মিনিট পরই ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নিতে পারতো দলটি। কিন্তু বিপজ্জনক জায়গা থেকে ঠিক মতো শট নিতে পারেননি মোহাম্মদ সালাহ। তবে সেই ভুল দ্রুতই শুধরে নেন মিশরের এ ফরোয়ার্ড। ৮৩তম মিনিপে ডি-বক্সের বাইরে থেকে উঁচু করে তিনি বল বাড়ান মানেকে। সেই সুযোগে দারুণ হেডে গোলরক্ষককে পরাস্থ করে গোল করেন তিনি। তাতেই দুর্দান্ত জয় নিশ্চিত হয় ইংলিশ জায়ান্টদের।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here