প্রথমার্ধের প্রাধান্য বিস্তার করে খেলেও গোল আদায় করতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ভুটানের বিপক্ষে লিড নেয় লাল-সবুজের মেয়েরা। পরে আরো এক গোল আদায় করে মাঠ ছাড়ে জয় ছিনিয়ে। একই সঙ্গে এক ম্যাচ হাতে থাকতেই নিশ্চিত করে সেমি-ফাইনাল।

বৃহস্পতিবার সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। নেপালের বিরাটনগরের শহীদ রঙ্গশালায় বৃহস্পতিবার ম্যাচটি শুরু হয়েছিল বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টা ১৫ মিনিটে। বাংলাদেশ প্রথম গোলটি পায় সহ-অধিনায়ক মিসরাত জাহান মৌসুমীর পা থেকে। দ্বিতীয় গোলটি করেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন।

ভুটান নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে হেরেছিল ৩-০ গোলে। দুই ম্যাচের দুটিতেই হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিল দলটি। আর এক ম্যাচ হাতে থাকতেই ‘এ’ থেকে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত হলো বাংলাদেশ ও নেপালের। শনিবার এই দুই দলের ম্যাচটি এখন গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াই।

একতরফা প্রাধান্য বিস্তার করে খেলা বাংলাদেশ একাধিক সুযোগ হাতছাড়া করে প্রথমার্ধে। ২৩ মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি স্ট্রাইকার সিরাত জাহান স্বপ্না।

৩৬ মিনিটে শামসুন্নাহারের পাস থেকে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনের দূরপাল্লার শট রুখে দেন ভুটান গোলরক্ষক। এ ছাড়া অফসাইডের ফাঁদে জড়িয়েও সুযোগ নষ্ট করেছে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই কর্নার কিক থেকে গোল আদায় করে নেয় বাংলাদেশ। জটলার ভেতর থেকে বল জালে জড়িয়ে দেন মৌসুমী।

ভুটান অবশ্য যেভাবেই হোক ম্যাচটা ড্র করার লক্ষ্যেই খেলেছে। ম্যাচ ড্র হলে বাংলাদেশের জন্য সমীকরণ হয়ে যেত। তখন নেপালের বিপক্ষে হারলে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় ঘণ্টাও বেজে যেতে পারত টুর্নামেন্টের বর্তমান রানার্সআপ বাংলাদেশের। কিন্তু ছোটনের শিষ্যরা প্রতিপক্ষ সে সুযোগই দেয়নি।

৬৭ মিনিটে সানজিদাকে তুলে নিয়ে বাংলাদেশ কোচ মাঠে নামান তহুরা খাতুনকে। সাফে এর মধ্যে নিয়ে অভিষেক হয় বাংলাদেশের গোল মেশিনের। ৭৩ বাংলাদেশের রক্ষণের ভুলে ভালো সুযোগ তৈরি করে ভুটান। কর্নার কিকও আদায় করে নেয় তারা। তবে সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় দলটি।

৮৬ মিনিটে সাবিনা ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের পা থেকে দারুণভাবে বল কেড়ে নিয়ে সাবিনাকে বাড়ান ম্যাচ জুড়ে দারুণ খেলা শামসুন্নাহার। এরপর একক প্রচেষ্টায় বল জালে জড়িয়ে দেন সাবিনা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here