ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে শীতালক্ষ্যা নদীর উপর নির্মিত দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু শনিবার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

৩৯৭ দশমিক ৩ মিটার দৈর্ঘ্য (লম্বা) ও ১৮. ১ মিটার চওড়া (প্রস্থ) চার লেনের এ সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৯৫০ কোটি টাকা।

গণভবনে এক ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাঁচপুর সেতু ছাড়াও ভুলতায় চার লেনের ফ্লাইওভার (উড়াল সেতু) এবং লতিফপুরে একটি ওভারপাস উদ্বোধন করেন।

জাপানী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওবায়েশি কর্পোরেশন, শিমিজু কর্পোরেশন, জেএফই প্রকৌশলী কর্পোরেশন এবং আইএইচ ইনফ্রা সিস্টেম কোম্পানি লিমিটেড দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুসহ  দ্বিতীয় মেঘনা এবং দ্বিতীয় মেঘনা-গুমতি সেতুর কাজ শুরু করে ২০১৬ সালের জানুয়ারি।

২০১৯ সালের জুনে দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও চার মাস আগেই এটির কাজ শেষ করা হয়।

এদিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতায় ৩৫৩ দশমিক ৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে তিন স্তরে ১ দশমিক ৩ কিলোমিটার চার লেনের ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হয়।

চীনা নির্মাণ সংস্থা চীন রেলওয়ে ২৪ ব্যুরো গ্রুপ, স্পেক্ট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড এবং এমএন বিল্ডার প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা আশা করছেন যে, এই ফ্লাইওভার নির্মানের ফলে ঢাকা-সিলেটে সড়ক যোগাযোগ সহজ হবে এবং যানজট দূর হবে। এতে ব্যবসা-বাণিজ্যেও গতিশীলতা ও জোরদার হবে।

এছাড়া ৪৫৬ দশমিক ৩৭ মিটার লতিফপুর ফ্লাইওভার চালুর কারণে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানচট কমিয়ে আসবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here