নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ঘাতক ব্রেনটন ট্যারেন্টকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত রিমান্ড দিয়েছে আদালত।

শুক্রবার জুমার নামাজে দুটি মসজিদে এই শ্বেতাঙ্গ খ্রিস্টানের নির্বিচার গুলিতে তিন বাংলাদেশিসহ কমপক্ষে ৪৯ জন নিহত হন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও ৪৮ জন।

হামলার ঘটনায় পুলিশ এক নারীসহ চারজনকে আটক করে। তবে তাদের মধ্যে কেবল ট্যারেন্টকে আদালতে তোলা হয়।

পুলিশ এখন বলছে, দুটি মসজিদে ট্যারেন্ট একাই হামলা চালিয়েছে। প্রায় ৩৬ মিনিট সে এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। তার কাছে দুটি মেশিনগানসহ পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র ছিল। তার গাড়িতে বিস্ফোরকও পাওয়া গেছে।

জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের ডিনস অ্যাভিনিউর আল নুর মসজিদ ও পার্শ্ববর্তী লিনউডের মসজিদে হামলা চালায় ট্যারেন্ট। স্ট্রিকল্যান্ড স্ট্রিটে একটি গাড়িবোমা হামলার চেষ্টার ঘটনাও ঘটেছে।

ক্রাইস্টচার্চে হেগলি ওভাল মাঠের খুব কাছের আল নুর মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর বন্দুক হামলার ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়েরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here