জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে হেলিকপ্টারযোগে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও ১০টায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল ১০টা ১৮ মিনিটে রাষ্ট্রপতি মাজার প্রাঙ্গণে পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রী তাকে স্বাগত জানান। এরপর রাষ্ট্রপতিকে সঙ্গে নিয়ে সমাধি সৌধের বেদির কাছে নিয়ে যান।

সকাল ১০টা ১৯ মিনিটে সামাধি সৌধের বেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে প্রথমে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রদ্ধা জানান। এ সময় বেজে ওঠে বিগউলের সুর। সেনা-নৌ ও বিমান বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। পরে ১৫ আগস্ট কাল রাতে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের নিহত সদস্য, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন। এরপর বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ প্রাঙ্গণে রক্ষিত মন্তব্য বইতে মন্তব্য লেখেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের পর আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে মন্ত্রী পরিষদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে আবারো বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের বেদিতে শ্রদ্ধা জানান শেখ হাসিনা।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার এটিএম ফজলে রাব্বি মিঞা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, তোফায়েল আহমেদ এমপি, আমির হোসেন আমু এমপি, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, কৃষি মন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এমপি, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাসিম, শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি, শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল এমপি, শেখ তন্ময় এমপিসহ দলীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জাতির পক্ষ থেকে রাষ্ট্রপতি জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পৌনে ১১টায় হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করেন।

সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত শিশু সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে বক্তব্য রাখার পাশাপাশি নানা সরকারি কর্মসূচিতে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here