চলতি বছর ভারতের মাটিতে তাদেরই বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি সিরিজ ও ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল অজিরা। সেই সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দারুণ খেলেন তিন ব্যাটসম্যান ওসমান খাওয়াজা, পিটার হ্যান্ডসকম্ব ও অ্যাশটন টার্নারের মত খেলোয়াড়েরা। সিরিজে এ সমস্ত ক্রিকেটাররা ভালো করায় আগামী ইংল্যান্ড ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নারকে অস্ট্রেলিয়া দলে ফিরতে নিজেদের আবারো প্রমাণ করতে হবে বলে মনে করেন বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং।

সাবেক অধিনায়ক স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ওয়ার্নার অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিমে বেশ গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন। কিন্তু গত বছরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় জাতীয় দল থেকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন এই দুজন। অবশ্য আগামী ২৯ মার্চ তাদের সাজার মেয়াদ শেষ হবে।

পন্টিংয়ের মতে, ‘অস্ট্রেলিয়া দল অনেক খারাপ অবস্থানে ছিল। তবে ভারতের মত পরাশক্তিকে তাদেরেই মাটিতে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া এখন আগামী বিশ্বকাপে অনেকটাই ফেভারিট।’

এছাড়াও তিনি বলেন, ‘ডেভিড ওয়ার্নার, স্মিথ, খাওয়াজা, ফিঞ্চ, ম্যাক্সওয়েল, টার্নার, জাম্পা, কামিন্স, স্টার্ক, হ্যাজেলউড এবং লায়নকে নিয়ে চমৎকার একটি স্কোয়াড সাজাতে পারবে অস্ট্রলিয়া।’

পাশাপাশি পন্টিং অধিনায়ক বিরাট কোহলির অধিনে ভারতেরও ভালো করার সম্ভাবনা দেখছেন। কোহলির প্রশংসা করে তিনি বলেন, তার (কোহলি) ইনিংসগুলো দেখলেই বুজা যায় যে, সে কেনো সেরা। তার (কোহলি) বয়স ৩০ এর মতো, হাতে এখনো অনেক সময়, ফলে সে (কোহলি) চাইলে আরো ২০০টি ম্যাচ খেলতে পারবে, কেননা এমন দক্ষতাও তার রয়েছে। আমি মনে করি না যে, সে সেরা এতে কারো দ্বিমত থাকবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here