রাজধানীতে বাসচাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন আগামী ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

এর মধ্যে দাবি না মানলে ২৮ তারিখ থেকে সারাদেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আরো কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা।

বুধবার বিকেলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়রভবনে মেয়র আতিকুল ইসলামের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এসময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ও বিইউপির ভিসি মেজর জেনারেল মো. এমদাদ-উল বারী উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের শুরুতেই আবরার আহমেদ চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, তার মৃত্যু যেমন শিক্ষার্থীরা মেনে নিতে পারছে না, তেমনি আমরাও মেনে নিতে পারছি না। আমি এজন্য আবারো দুঃখ প্রকাশ করছি। আমরা গতকাল সেখানে (ঘটনাস্থলে) গিয়েছিলাম। সেখানে শিক্ষার্থীদের বেশ কিছু দাবি এসেছিল। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে যেটা তরিৎগতিতে করা সম্ভব ছিল, সেটা হল ফুটওভার ব্রিজ। এটা আমরা শুরু করেছি। আমি ধন্যবাদ জানাই আমাদের প্রকৌশলীদের। ধন্যবাদ জানাচ্ছি সংশ্লিষ্ট সকলকে।

তিনি জানান, আমরা আলোচনা করে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সুপ্রভাত পরিবহনের সকল বাস চলাচল স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জাবালে নূর পরিবহনের বাসগুলোর চলাচল স্থগিত করতে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার বাসচাপায় বিইউপি শিক্ষার্থী আবরারের নিহতের ঘটনায় রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানান রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। গেলবারের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের মতই এবারেও রাজধানীর বিভিন্ন মোড়ে তারা গাড়ি চালকের লাইসেন্স চেক করেন।

আবরারের নিহতের ঘটনায় তার বাবার করা মামলায় গ্রেপ্তার সুপ্রভাত পরিবহনের চালক সিরাজুলকে ৭ দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। এর আগেও এক তরুণীকে বাসচাপা দিয়ে গুরুতর আহত করেছেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here