শাহরিয়ার নাফীসের মা সালমা আনজুম লতার খুব ইচ্ছে ছিল, নাতনিকে কোলেপিঠে করে মানুষ করবেন। অবশেষে তাঁর সেই ইচ্ছে পূরণ হতে চলেছে। বুধবার দিবাগত রাতে কন্যা সন্তানের জনক হয়েছেন তাঁর ছেলে শাহরিয়ার নাফীস।

শাহরিয়ার নাফীস ও তার স্ত্রী ঈশিতা তাসমিন এদিন তাদের দ্বিতীয় সন্তানের বাবা-মা হন। এই দম্পতির ৯ বছর বয়সী এই পুত্র সন্তানও রয়েছেন যার নাম শাহওয়ার আলী নাফীস। ফেসবুকে প্রকাশ পাওয়া নাফীস ও তার সদ্য জন্ম নেওয়া কন্যা শিশুর একটি ছবিতে বাবা-মেয়েকে একসাথে দেখা যায়। জন্মের পর মেয়ে এবং মা দুজনই সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে।

৩৩ বছর বয়সী শাহরিয়ার নাফীস বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার। প্রায় ৬ বছর আগে নিজের ক্যারিয়ারের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেললেও নাফীসের বর্তমান ফর্মও মোটেও খারাপ নয়। ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত এই পারফর্মার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ কিংবা প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিয়মিতই রান পাচ্ছেন ব্যাটে।

কন্যা সন্তানের জনক হওয়ার সুখবর পাওয়ার একদিন আগেও নাফীস ব্যস্ত ছিলেন ক্রিকেট নিয়ে। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তার দল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ মুখোমুখি হয়েছিল অপরাজিত মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের। মোহামেডানের ২৯৫ রানের বড় লক্ষ্যে তাড়া করতে নেমে দল ছিল চাপে।

সেই চাপ ঘনীভূত হয় দুই ওপেনার দ্রুত বিদায় নিলে। এরপর মুমিনুল হক ও অধিনায়ক নাঈম ইসলামের সাথে ছোটখাটো দুটি জুটি গড়ে দলের রান বাড়াতে সাহায্য করেন নাফীস। ৩৫ বলের মোকাবেলায় ৩টি চারের সাহায্যে করেন ২৫ রান।

এর আগে নিজের দল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের মধ্যকার ম্যাচে চওড়া ছিল তার ব্যাট। ঐ ম্যাচে ৫৯ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলেন নাফীস। তার ঐ ইনিংসে ভর করে দল ৩ উইকেটের জয় পায়, ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ও হয়েছিলেন নাফীসই।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here