ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের উত্তরাঞ্চলীয় গোলেস্তান, মাজান্দারান, ফার্স, লোরেস্তান ও কেরমানশাহ প্রদেশে আকস্মিকভাবে বন্যা দেখা দিয়েছে। প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের ফলে ১৪টি নদীতে পানি বেড়ে যাওয়ায় এ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে।

ইরানের তাসনিম নিউজ জানিয়েছে, গোলেস্তান প্রদেশের অন্তত ৭০টি গ্রামে এবং মাজান্দারান প্রদেশের ২০০’র বেশি গ্রামে প্রায় ৫৬ হাজার মানুষ বন্যার কবলে পড়েছে। বন্যায় ইতোমধ্যে ৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

বন্যা দুর্গত লোকজনকে সহায়তা করার জন্য দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী সরকারি কর্মকর্তা ও সাধারণ জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এছাড়া, বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ তৎপরতা জোরদার করার জন্য ইরানের সামরিক বাহিনীর চিফ অব স্টাফ মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ বাকেরিকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সর্বোচ্চ নেতার নির্দেশের পর সেনাবাহিনীসহ সশস্ত্র বাহিনী, ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী বাসিজ বন্যার ক্ষয়ক্ষতি কমানোর জন্য তাদের সমস্ত সক্ষমতা নিয়োগ করেছে। রেডক্রিসেন্ট সোসাইটিও ত্রাণ বিতরণ করছে।

বন্যা পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখার জন্য ইরানের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসহাক জাহাঙ্গিরি গোলেস্তান প্রদেশে গেছেন

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here