পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এক বিতর্কিত মন্তব্যের জের ধরে ইসলামাবাদ থেকে নিজ রাষ্ট্রদূতকে দেশে ডেকে পাঠিয়েছে আফগানিস্তান। একইসঙ্গে কাবুলে নিযুক্ত পাকিস্তানের উপ রাষ্ট্রদূতকেও আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে।

ইমরান খান কাবুলে একটি অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের আহ্বান জানানোর পর এ ব্যবস্থা নিল আফগান সরকার। কাবুল পাক প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে উল্লেখ করেছে।

ইমরান খান সোমবার পাকিস্তানি সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, আফগানিস্তানে একটি অন্তর্বর্তী সরকার গঠিত হলে তালেবান ও মার্কিন কর্মকর্তাদের মধ্যে চলমান শান্তি প্রক্রিয়ার পথ মসৃণ হবে। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, তালেবান আফগানিস্তানের বর্তমান সরকারের সঙ্গে সংলাপে বসতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে।  পাকিস্তানি দৈনিক ‘দি এক্সপ্রেস ট্রিবিউন’সহ অন্যান্য গণমাধ্যমে ইমরান খানের এ বক্তব্য প্রকাশিত হয়।

পাক প্রধানমন্ত্রী আফগান শান্তি প্রক্রিয়ায় আশরাফ গনির নেতৃত্বাধীন বর্তমান আফগান সরকারকে একটি ‘প্রতিবন্ধকতা’ হিসেবে অভিহিত করেন। ইমরান খান আরো বলেন, তিনি আফগান সরকারের প্রতিবাদের কারণে তালেবান নেতাদের সঙ্গে একটি পূর্বনির্ধারিত বৈঠক বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন।

পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সিবগাতুল্লাহ আহমাদি বলেছেন, ইমরান খানের ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বক্তব্যের প্রতিবাদে ইসলামাবাদে নিযুক্ত আফগান রাষ্ট্রদূতকে দেশে ডেকে পাঠানোর পাশাপাশি কাবুলে নিযুক্ত পাকিস্তানের উপ রাষ্ট্রদূতকে আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে।  তিনি আরো বলেন, আফগান সরকার খানের বক্তব্যকে পাকিস্তানের হস্তক্ষেপকামী নীতি এবং আফগানিস্তানের সার্বভৌমত্ব ও দেশের জনগণের আকাঙ্ক্ষার প্রতি ইসলামাবাদের অসম্মান প্রদর্শনের জ্বলন্ত উদাহরণ বলে মনে করছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here