রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুনে ২৫ জন নিহত হয়েছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৪ জনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে কর্তৃপক্ষ।  একজনের লাশ ময়না তদন্তের পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুনের নিহতদের মরদেহ নিতে রাতভর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মর্গের সামনে অপেক্ষায় ছিলেন স্বজনরা। ভোরে হস্তান্তর করা হয় মরদেহগুলো।

আগুনের ঘটনায় বিভিন্ন হাসপাতালে এখনও চিকিৎসাধীন কমপক্ষে ৭০ জন। উদ্ধার কার্যক্রম এখনও চলছে। ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ৬ সদস্যের এবং দূর্যোগ মন্ত্রণালয় ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে।

এ ঘটনায় বনানীতে ঘটনাস্থলের আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

এর আগে উদ্ধার কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম। অনুমোদনহীন সকল ভবন ভেঙে ফেলার কথা জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়া ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক (ডিডি) দেবাশিষ বর্ধন জানিয়েছেন, ‘আমরা সর্বশক্তি দিয়ে কাজ করছি। আমাদের ২৫টি ইউনিট কাজ করছে। হাই-রাইজ ভবনে উদ্ধার কাজ চালানোর জন্য আমাদের সব ইক্যুপমেন্ট নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।’

‘ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি হয়েছে। হতাহতের সংখ্যা এবং অগ্নিকাণ্ডের কারণ তদন্ত প্রতিবেদন পেলে নিশ্চিত হওয়া যাবে।’

কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ের ৩২ নম্বর হোল্ডিংয়ে ২২ তলা ওই বাণিজ্যিক ভবনের সবগুলো ফ্লোরেই দোকান ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অফিস।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। কীভাবে এ আগুনের সূত্রপাত তা এখনো জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে।পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৭২ জনের মৃত্যুর ৩৬ দিনের মাথায় আগুনে পুড়ল অভিজাত এলাকা বনানীর বহুতল ভবন এফআর টাওয়ার থাকা ২৫ টি প্রাণ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here