সময়টা একেবারেই ভালো যাচ্ছে না পাকিস্তান ক্রিকেটের।২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের পর সবার ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ ধারণা পরিবর্তন করে দিয়েছেন সরফরাজ বাহিনী।তার পরের বছরই ধ্বস পাক শিবিরে।নিজেদেরকে খুঁজে পাচ্ছেন না সরফরাজরা।

সামনে ওয়ানডে বিশ্বকাপ।সে লক্ষ্যে সবাই নিজেদের জালিয়ে নিচ্ছে।কিন্তু পাকিস্তান কি করছে? সবার গা গরমের সময় হারের বৃত্তে বন্ধী ৯২-এর বিশ্বকাপজয়ীরা।

এমন হাল কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেন না দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান।দলের এমন অবস্থা দেখে ভীষণ দুশ্চিন্তায় ইমরান। টেস্ট ও ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়েও শীর্ষ পাঁচের মধ্যে নেই সরফরাজ আহমেদের দল। ইমরান এই অবস্থার যত দ্রুত সম্ভব পরিবর্তন চান। আর তাই বুধবার পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন। সেখানে পিসিবি কর্মকর্তাদের চরম সমালোচনাই করেছেন কিংবদন্তি এই অলরাউন্ডার।

আফগানিস্তান, হংকং ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচগুলো বাদ দিলে গত বছর থেকে ওয়ানডেতে পাকিস্তানের জয় খুঁজে পেতে কষ্ট হবে। আবুধাবিতে এশিয়া কাপের আসরে সেরার তকমা গায়ে লেপে যায় পাকিস্তান।আর নিজেদের ঘরের মাঠে পথ খুঁজে পায়নি পাকিস্তান।এ সময় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে দুটি ওয়ানডে খেলে দুটিতেই হেরেছে দলটি। হেরেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি ওয়ানডেতেও।

এ তো গেল ২০১৮ সালের কথা।নতুন বছর নতুনত্ব নিয়ে ফেরার কথা সরফরাজদের।ময়দানী লড়াইয়ে তা আর দেখা গেল কই! নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আট ম্যাচে জয় মাত্র একটি।আর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চলতি পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম তিনটিতেই হেরেছে পাকিস্তান।বিশ্বকাপের আগে এই যদি হয় জাতীয় দলের পারফরম্যান্স, তাহলে আশা থাকে কতটুকু?

ইমরান এই আশা পুনরুজ্জীবিত করতেই বৈঠক করেছেন। জিও টিভি জানিয়েছে, সেই বৈঠকে পিসিবি কর্মকর্তাদের তিনি বলেছেন, পাকিস্তান ক্রিকেটে নানা রকম সমস্যা সমাধান করতে হলে পিসিবি কর্তাদের ব্যক্তিগত স্বার্থ দূরে রাখতে হবে। পিসিবি কর্তারা ইমরানকে বোঝাতে নানা যুক্তি পেশ করলে সাবেক এই পেসার নাকি সোজাসাপ্টাই বলেন, ‘৪০ বছর ধরে ক্রিকেট খেলেছি। আমাকে বোঝানোর দরকার নেই।’

পাকিস্তানের হয়ে ২১ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৮৮ টেস্ট ও ১৭৫ ওয়ানডে খেলেছেন ইমরান। পাকিস্তানের সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার হিসেবেও তাঁকে বিবেচনা করা হয়। খেলা ছেড়ে রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ার পর এখন দেশটির প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলাচ্ছেন।

অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটের আদলে পাকিস্তানের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট সাজানোর পরামর্শ দিয়েছেন ইমরান। মাঠ ও মাঠের বাইরে বেশ কিছুদিন ধরেই ভুগছে পাকিস্তানের ক্রিকেট। পাকিস্তানের মাটিতে এক দশক হয়ে গেল বড় কোনো দল সফরে যায়নি। আইপিএলেও খেলার সুযোগ পান না পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। আর ভারতের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজও হচ্ছে না অনেক বছর হয়ে গেল।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান এসব অচলায়তন ভেঙে যত দ্রুত সম্ভব সবকিছুর পরিবর্তন চান। এ ছাড়া জাতীয় দলে খেলোয়াড় নির্বাচনের ব্যবস্থাও ঢেলে সাজানোর পরামর্শ দিয়েছেন ইমরান। এ নিয়ে পিসিবির এক কর্তার উদ্ধৃতি প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম, ‘মানি (পিসিবির সভাপতি) প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেছেন, জাতীয় দলের খেলোয়াড় নির্বাচনের প্রক্রিয়া উন্নত করতে বোর্ড সব রকম চেষ্টাই করবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here