আন্তর্জাতিক বিরতি থেকে ফেরাটা চ্যাম্পিয়নসুলভ হলো না জুভেন্তাসের। সেরি ‘আ’ লিগে পয়েন্ট তালিকার নিচের দিকের দল এম্পোলির বিপক্ষে জয়ের জন্য বেগ পোহাতে হয়েছে জুভদের। শেষ পর্যন্ত ইতালির তরুণ স্ট্রাইকার মইজে কেনের গোলে স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির দল।

১৯ বছর বয়সী মইজে কেন গেল মঙ্গলবার (২৭ মার্চ) ইউরো-২০২০ বাছাইপর্বে পার্মায় বিপক্ষে গোল করেন। এর আগেও এই ফরোয়ার্ডের ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে দলের দ্বিতীয় গোলটি করেছিলেন।

শনিবার (৩০ মার্চ) নিজেদের মাঠে এম্পোলিকে ১-০ গোলে হারায় জুভেন্টাস। আগের ম্যাচে জেনোয়ার মাঠে লিগ মৌসুমে প্রথম হারের স্বাদ নিয়ে আন্তর্জাতিক বিরতিতে যায় জুভেন্তাস। এক ম্যাচ বাদেই জয়ে ফিরে টানা অষ্টম লিগ শিরোপার পথে অনেকটা এগিয়ে গেল ‘ওল্ড লেডি’ খ্যাত দলটি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নাপোলির চেয়ে তারা ১৮ পয়েন্টে এগিয়ে। বাকি ৯ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট পেলেই শিরোপা নিশ্চিত হবে জুভদের।

উরুর চোটের কারণে এদিন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর না থাকাটা আগে থেকেই নিশ্চিত ছিল। অনুশীলনে একই চোট নিয়ে ছিটকে পড়েন পাওলো দিবালাও। ঘরের মাঠে আক্রমণভাদের দুই তারকার অনুপস্থিতি ছিল স্পষ্ট। গতিহীন সাদামাটা ফুটবল যাকে বলে। বলের দখলেও তারা ছিল পিছিয়ে।

প্রথমার্ধে উল্লেখ করার মত একটা সুযোগ পায় তারা। ৩১তম মিনিটে মানজুকিচের নেওয়া হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভাগ্যের ফেরে গোলবঞ্চিত হয় স্বাদগতিকরা। অ্যালেক্স সান্দ্রোর ক্রসে নেওয়া ফেদেরিকো বের্নাদেস্কির ভলি ক্রসবারে লাগে।

৬৯তম মিনিটে মাতুইদির বদলি নামের কেন। তিন মিনিট পরই তরুণ ফরোয়ার্ড পেয়ে যান গোলের দেখা। হেডে বাড়ানো মানজুকিচের বল সরাসরি শটে জালে পাঠিয়ে দেন ১৯ বছর বয়সী। আন্তর্জাতিক বিরতিতে ইতালির হয়ে ২ গোল করে আসা উঠতি ফরোয়ার্ডের লিগে এটি তৃতীয় গোল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here