স্লোভাকিয়ার প্রথম নারী রাষ্ট্রপ্রধান হয়েছেন দুর্নীতিবিরোধী প্রার্থী জুজানা কাপুতোভা। জুজানা’র কোনো রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা নেই বললেই চলে। তারপরও ২ ধাপ বিশিষ্ট ভোট পদ্ধতিতে ক্ষমতাসীন দলের হাই প্রোফাইল প্রার্থী ও কূটনীতিক মারোস সেফকোভিককে হারাতে সফল হয়েছেন তিনি।

গত বছর স্লোভাকিয়ায় এক অনুসন্ধানী সাংবাদিকের হত্যার ঘটনা এ নির্বাচনে অনেক ভূমিকা রেখেছে। জ্যান কুচিয়াক নামের এই সাংবাদিক পরিকল্পিত অপরাধের সঙ্গে রাজনীতিকদের সংশ্লিষ্টতা খতিয়ে দেখছিলেন। এরই মাঝে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে তাকে ও তার বাগদত্তাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

নির্বাচনী প্রচারণার সময় জুজানা বলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট পদে তার দাঁড়ানোর পেছনে জ্যান কুচিয়াকের মৃত্যু অন্যতম প্রধান কারণ। এবারের নির্বাচনকে তিনি বরাবরই ভালো আর মন্দের লড়াই বলে উল্লেখ করে এসেছেন।

প্রায় সব ভোটগণনা শেষে কাপুতোভা ৫৮ শতাংশ ভোট নিয়ে সেফকোভিকের বিপক্ষে জয়লাভ করেন। সেফকোভিক পেয়েছেন ৪২ শতাংশ ভোট।স্লোভাকিয়া-প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট

জুজানা কাপুতোভা পেশায় একজন আইনজীবী। অবৈধ জমি দখলের বিরুদ্ধে একটি মামলা টানা ১৪ বছর ধরে লড়ার মধ্য দিয়ে দেশজুড়ে খ্যাতি লাভ করেন তিনি। ৪৫ বছর বয়সী কাপুতোভা দুই সন্তানের মা। তিনি উদারপন্থি রাজনৈতিক দল প্রগ্রেসিভ স্লোভাকিয়া পার্টির একজন সদস্য। পার্লামেন্টে দলটির কোনো আসন নেই।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here