পরিচিত মাঠ হলেও টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে বাধ্য হয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংস৷ পাঁচ ওভারের মধ্যেই তিন উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়া সত্ত্বেও ধোনির অধিনায়কোচিত হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে লড়াই করার রসদ কুড়োয় সিএসকে৷ পরে সেই পুঁজিকে পাথেয় করেই রাজস্থান শিবিরে প্রত্যাঘাত হানে তারা৷ যার মিলিত ফল, শেষ ওভারের থ্রিলারে উত্তেজক জয় তুলে নেয় হুইসল পডু৷

চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে চিপকে রাজস্থানের রেকর্ড আহামরি কিছু নয়৷ সেই রেকর্ডটা একটু শুধরে নেওয়ার সুযোগ তৈরি করেছিল রয়্যালস শিবির৷ শেষমেশ ডোয়েন ব্র্যাভোর অনবদ্য ডেথ বোলিংয়ের সামনে নাথা নত করতে হয় রাহানেদের৷ শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৩ রান দরকার ছিল রাজস্থানের৷ দু’টি উইকেট হারিয়ে ব্র্যাভোর শেষ ওভারে মাত্র চার রানই তুলতে সক্ষম হয় তারা৷ চেন্নাইয়ের ৫ উইকেটে ১৭৫ রানের জবাবে রাজস্থান থেমে যায় ৮ উইকেটে ১৬৭ রানে৷ চেন্নাইয়ের কাছে ৮ রানের ব্যবধানে হার মানে রাজস্থান৷

আগের ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ জিতে শীর্ষে উঠলেও চেন্নাইয়ের পেছনে পড়ে গেছে। তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের এক নম্বরে ধোনিরা। ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় হায়দরাবাদ। সমান পয়েন্টে সেরা পাঁচের বাকি দল কলকাতা নাইট রাইডার্স, দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

এমএ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটে ১৭৫ রান করে চেন্নাই। জবাবে ৮ উইকেটে ১৬৭ রান করে রাজস্থান।

চেন্নাই ২৭ রানে ৩ উইকেট হারালে ক্রিজে নামেন ধোনি। সুরেশ রায়নার (৩৬) সঙ্গে ৬১ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক। তারপর ডোয়াইন ব্রাভোর সঙ্গে আরেকটি পঞ্চাশ ছাড়ানো জুটিতে লড়াই করার মতো স্কোর গড়তে অবদান রাখেন ধোনি। তাদের জুটি ছিল ৫৬ রানের।

bravoশেষ ওভারে দারুণ বোলিংয়ে জয়ে ভূমিকা রাখলেন ব্রাভো

রবীন্দ্র জাদেজাকে নিয়ে শেষ ৯ বলে ৩১ রান তোলেন ধোনি। ৪৬ বলে চারটি করে চার ও ছয়ে ৭৫ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। ম্যাচসেরা হয়েছেন চেন্নাই অধিনায়ক।

রাজস্থানের পক্ষে জোফরা আর্চার সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন।

চেন্নাই লক্ষ্যে নামা রাজস্থানের প্রথম তিন উইকেট তুলে নেয় ১৪ রানে। ৬১ রানের জুটি গড়ে এই ধাক্কা সামাল দেন স্টিভেন স্মিথ ও রাহুল ত্রিপাঠী। দুজনকে ১৯ রানের ব্যবধানে আউট করে ম্যাচে ফেরে চেন্নাই। ত্রিপাঠী ৩৯ ও স্মিথ ২৮ রানে মাঠ ছাড়েন।

এরপর ক্রিজে নেমে আর্চারকে নিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জাগান বেন স্টোকস। তাতে শেষ ওভারে ১২ রান দরকার ছিল রাজস্থানের। কিন্তু প্রথম বলেই স্টোকসকে ফেরান ব্রাভো। ২৬ বলে একটি চার ও তিন ছয়ে ৪৬ রানে আউট হন ইংলিশ ব্যাটসম্যান। পঞ্চম বলে আরও একটি উইকেট হারায় অতিথিরা। আর্চার ১১ বলে ২৪ রানে টিকে ছিলেন।

চেন্নাইয়ের পক্ষে দীপক চাহার, শারদুল ঠাকুর, ইমরান তাহির ও ব্রাভো দুটি করে উইকেট নেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here