বিশ্বকাপের আগে একের পর এক চোটে টালমাটাল বাংলাদেশের ক্রিকেট। ইনজুরিতে আক্রান্ত সাত ক্রিকেটারের মধ্যে একজন পেসার রুবেল হোসেন। বেশ কিছুদিন আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শেষ করে যোগ দিয়েছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। তবে টি-টোয়েন্টির পর ওয়ানডে ফরম্যাটে খেলতে নেমে বাঁধিয়েছেন বিপত্তি, ছিটকে গেছেন চোটে। দীর্ঘদিন পর ফিট হয়ে আবার মাঠে ফেরার হাতছানি রুবেলের সামনে। আসন্ন বিশ্বকাপ ভাবনাতে তাকে আগলে রেখে মাঠে নামাতে চান তার দল আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন।

টাইগারদের বিশ্বকাপ ভাবনাতে বেশ ভালোভাবেই আছেন রুবেল হোসেন, তাকে নিয়ে করা হচ্ছে আলাদা ছক। তবে বেশ কয়েকদিন ধরেই পেশীর চোটে ভুগছেন তিনি। সেই চোট এখন অনেকটাই ভালোর দিকে, তবুও রুবেলকে নিয়ে এখনই ঝুঁকি নিতে চান না প্রিমিয়ার লিগের তার কোচ সুজন। ফিট ও ফিজিওর সবুজ সংকেত পেলেই কেবল রুবেলকে মাঠে নামাবেন তিনি।

আজ থেকে শুরু হয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেটের সুপার লিগের লড়াই। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের চেয়ে ৪ পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী লিমিটেড। তাই সুপার লিগে রুবেলের মতো পরীক্ষিত পারফর্মারকে মাঠে পেলে তা আবাহনীর জন্য বাড়তি অনুপ্রেরণা হিসেবেই কাজ করবে। তবু আসন্ন বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বোলিং বিভাগে বাংলাদেশের বড় সম্পদ রুবেলকে নিয়ে ঝুঁকিতে যেতে চান না সুজন।

মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সুজন বলেন, ‘পেসারদের জন্য পেশির চোট খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যখন বল করবেন তখন এই জায়গাটায় চাপ পড়বে বেশি। আমিও চাই না যে ও হালকা ফিট হয়ে খেলুক। যদি রিকভার করে ফুল ফিট হয়ে খেলতে চায়, তাহলে খুবই ভালো। আমি মনে করি রুবেল বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় সম্পদ।’

একই সাথে তিনি আরও যোগ করেন, ‘সামনে বিশ্বকাপ আছে, সেটা আমাদের জন্য চিন্তার বিষয়। বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খেলবে। এটা ক্লাব ক্রিকেট না, এটা দেশের ব্যাপার। গুরুত্ব অবশ্যই বাংলাদেশের দিকে যাবে। ফিজিও যদি সবুজ সংকেত দেয় তাহলে সে খেলবে। তা না হলে পরের ম্যাচে রুবেল (সোমবার প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে) খেলতে পারবে কিনা আমার সন্দেহ আছে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here