আইপিএলে আজকের ম্যাচগুলোতে ছিলো প্রোটিয়াদের আধিপত্য। চেন্নাইয়ের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন ইমরান তাহির। আর দিল্লি ক্যাপিটালসের জয় পেতে ভূমিকা রেখেছেন পেসার কাগিসো রাবাদা ও ক্রিস মরিসরা। তাদের অসাধারণ বোলিংয়ে দিল্লির কাছে ৩৯ রানে হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

বিস্ময়করভাবে ভেঙে পড়ল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ব্যাটিং লাইনআপ। ১৫৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৫.১ ওভারে ২ উইকেটে ১০১ রান তুলে ফেলে হায়দরাবাদ। সেখান থেকে মাত্র ১১৬ রানেই ‍গুটিয়ে গেল দলটি। দিল্লি ক্যাপিটালস জিতে নিল ম্যাচ। আর টানা তিন ম্যাচ হারল হায়দরাবাদ।

এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে ওঠে এল শ্রেয়াস আয়ারের নেতৃত্বাধীন দল। ৮ ম্যাচে ৫ জয়ে মোট ১০ পয়েন্ট তাদের। আর ৭ ম্যাচে এ নিয়ে চতুর্থ হার হায়দরাবাদের। ৬ পয়েন্টে নিয়ে তাদের অবস্থান ষষ্ঠ স্থানে।

এদিন টানা ষষ্ঠ ম্যাচের মতো সাকিব আল হাসানকে বাইরে রেখে খেলতে নামে হায়দরাবাদ। টস হেরে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ১৫৫ রান করে দিল্লি। সর্বোচ্চ ৪৫ রান আসে অধিনায়ক শ্রেয়াস আয়ারের ব্যাট থেকে। ৪০ রান করেন কলিন মুনরো। হায়দরাবাদের পক্ষে সর্বাধিক ৩ উইকেট নেন খলিল আহমেদ।

জবাবে ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো দারুণ শুরু করেন। উদ্বোধনী জুটিতে তোলেন ৭২ রান। দশম ওভারে বেয়ারস্টোকে ফেরান কিমো পল। ৩১ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৪১ রান করেন বেয়ারস্টো। এর ৬ রানের ব্যবধানে কেন উইলিয়ামসকেও (৩) ফিরিয়ে দেন পল।

তারপরও ওয়ার্নার ছিলেন উইকেটে। তাই পুরোপুরি ভাবে ম্যাচে ছিল হায়দরাবাদ। কিন্তু এরপরই শুরু হলো হায়দরাবাদের ব্যাটিং ধস। কিমো পলের সঙ্গে একে একে উইকেটে তুলে নিতে থাকলেন কাগিজো রাবাদা ও ক্রিস মরিস। তাতে নিমেষেই যেন শেষ হয়ে গেল হায়দরাবাদের ইনিংস।

ওয়ার্নার ৪৭ বলে ১ ছক্কা ও ৩ চারে ৫১ রান করেন। দিল্লির পক্ষে সর্বাধিক ৪ উইকেট নেন রাবাদা। ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন ক্রিস মরিস ও কিমো পল। ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন কিমো পল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here