যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তাবিত ইসরায়েল-ফিলিস্তিন শান্তি চুক্তি প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে ফিলিস্তিন যা ‘ শতবর্ষের চুক্তি’ নামে পরিচিত। ফিলিস্তিন এই চুক্তির বিরোধিতা করার মূল কারণ এই চুক্তিতে ফিলিস্তিনকে পুরোপুরি সার্বভৌমত্ব প্রদানের কথা উল্লেখ করা হয়নি। খবর- ওয়াশিংটন পোস্ট।

চুক্তির মূল উপাদানের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বিভিন্ন উৎস অনুযায়ী এই চুক্তির মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের নির্দেশনা থাকলেও এর ফলে বিঘ্নিত হতে পারে ফিলিস্তিনির নিরাপত্তা।

মার্কিন হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে আশা করা হচ্ছে এই দীর্ঘ অপেক্ষিত শান্তি চুক্তি খুব শিগ্রই প্রকাশ করা হবে। এই চুক্তির অগ্রনায়ক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা জেরিড কুসনার ।

যদিও এখনো এই চুক্তির ব্যাপারে সকল তথ্যই গোপনীয় রাখা হয়েছে তবে জেরিড কুসনার ও মার্কিন অফিসিয়ালদের থেকে জানানো হয় , ‘রাষ্ট্র গঠনের প্রথম পদক্ষেপ শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রতিজ্ঞা করা।’

তবে সার্বিকভাবে এই চুক্তির মূল উদ্দেশ্য ইসরায়েলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং অবকাঠামোগত ও শিল্পোন্নয়নে রাজধানী গাজা কে প্রাধান্য দেওয়া। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বেশ বেগ পেতে হবে কারন এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে প্রয়োজন ইসরায়েল- ফিলিস্তিন সহ আরব দেশগুলোর সার্বিক সম্মতি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here