রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে প্রথমে রোমাঞ্চ ছড়িয়েছিল আয়াক্স। এরপর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাসকে পাত্তা না দিয়ে নেদারল্যান্ডসের দলটি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে ওঠে। যা অনেকের কাছেই অবিশ্বাস্য মনে হয়েছিল। বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার রাতে ইউরোপ সেরার এ টুর্নামেন্টে আবারো চমক দিয়েছে মাওরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। এবার তারা ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যামকে হারিয়ে ইউরোপ সেরার লড়াইয়ের ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখলো।

টটেনহ্যাম হটস্পারের স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার সেমিফাইনালের প্রথম লেগে ১-০ গোলে জিতেছে আয়াক্স। আগামী ৮ মে হবে ফিরতি লেগের খেলা। প্রথমবারের মতো ইউরোপ সেরা আসরের ফাইনালে উঠতে আয়াক্সের মাঠে মাওরিসিও পচেত্তিনোর দলকে জিততে হবে কমপক্ষে ২-১ গোলের ব্যবধানে।

প্রতিপক্ষের মাঠে খেললেও এদিন ম্যাচে দাপট ছিল আয়াক্সেরই। ম্যাচের ১৫তম মিনিটেই এগিয়েও যায় দলটি। সে গোলটিই হয় শেষ পর্যন্ত ম্যাচের নির্ধারক। হাকিম জিয়েখের পাস থেকে অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ফাঁকায় বল পেয়ে যান দনি ভ্যান দি বিক। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দেখেশুনে সময়ে নিয়ে গোলরক্ষক হুগো লরিসকে পরাস্ত করেন এ মিডফিল্ডার।

২৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার দুর্দান্ত সুযোগ পেয়েছিল অতিথিরা। এবারও সেই দি বিক। দুসান তাদিচের বাড়ানো বলে ডি বক্সে মধ্যে দারুণ শট নিয়েছিলেন দি বিক। কিন্তু তার চেয়েও দারুণ দক্ষতায় সে শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক লরিস।

দুই মিনিট পর ব্যবধান কমানোর দারুণ সুযোগ পেয়েছিল টটেনহাম। ফ্রি কিক থেকে কিয়েরান ট্রিপিয়ারের নেওয়ার ক্রসে ফাঁকায় হেড দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন ফের্নান্দো লরেন্তে। কিন্তু তার হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ম্যাচের যোগ করা সময়ে আরও একটি ফ্রি কিক থেকে ট্রপিয়ারের নেওয়া ক্রসে ফাঁকায় হেড দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন টবি অল্ডারওয়েরেল্ড। কিন্তু তিনিও লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধ করতে মরিয়া হয়েই খেলতে থাকে টটেনহ্যাম। তবে সুবিধা করে উঠতে পারেনি। ভালো গোছানো তেমন কোন আক্রমণ করতে ব্যর্থ হয় দলটি। ৫৬তম মিনিটে ট্রিপিয়ারের ক্রস থেকে ফাঁকায় হেড দেওয়ার সুযোগ পেয়েও লক্ষ্যে রাখতে পারেননি ডেলে আলী। উল্টো ৭৮ মিনিটে প্রায় গোল খেতে বসেছিল দলটি। তাদিচের বাড়ানো বলে ডি বক্সের বা প্রান্তে ফাঁকায় বল পেয়ে যান দাভিদ নেরেস। ভালো শটও নিয়েছিলেন। কিন্তু বার পোস্টে লেগে ফিরে আসলে সে যাত্রা বেঁচে যায় স্বাগতিকরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here