ক্রিস লিন-শুভমান গিলের চওড়া ব্যাটে ভর করে প্লে-অফের স্বপ্ন দেখা শুরু কেকেআর শিবিরে। শুক্রবার মোহালিতে কিংস ইলেভেনের ছুঁড়ে দেওয়া ১৮৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁতে বিশেষ বেগ পেতে হল না নাইট শিবিরকে। দুই ওপেনার পাশাপাশি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের সহযোগীতায় দু’ওভার বাকি থাকতে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে গেল নাইট রাইডার্স।

প্লে-অফে পৌঁছতে গেলে শেষ ম্যাচে যদিও মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে জিততেই হবে ১৩ ম্যাচে ১৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা কেকেআরকে। পাশাপাশি আরসিবির বিরুদ্ধে সানরাইজার্সের ফলাফলের দিকেও নজর রাখতে হবে তাদের। কারণ সমসংখ্যক ম্যাচে একই পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকলেও নেট রান রেটে বেশ কিছুটা এগিয়ে উইলিয়ামসনরা।

টস হেরে ব্যাট করা পাঞ্জাব বড় স্কোরের দেখা পায় স্যাম কারানের ২৪ বলে করা অপরাজিত ৫৫ রানে। এর আগে স্কোর বোর্ড সমৃদ্ধ করতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে নিকোলাস পুরানের ২৭ বলে করা ৪৮ আর আগারওয়ালের দ্রুত গতির ৩৬ রান। মন্দীপ সিংহও ২৫ রানে ভূমিকা রাখেন। ক্রিস গেইল ১৪ রানের বেশি করতে পারেননি। তাতে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রান তোলে পাঞ্জাব।

জিততেই হবে এই ম্যাচ- এমন মানসিকতায় শুরু থেকে দৃঢ় প্রত্যয়ী ছিলেন কলকাতা ওপেনার শুবমান গিল। তার ৪৯ বলে করা অপরাজিত ৬৫ রানেই জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলেছে কলকাতা। ক্রিস লিন ২২ বলে ৪৬ রান করে তার সঙ্গী হয়ে উড়ন্ত সূচনায় ভূমিকা রেখেছেন। আন্দ্রে রাসেল দ্বিতীয় জীবন পেয়ে ১৪ বলে ২৪ রান তুললেও তাকে বিদায় দিয়ে কিছুটা স্বস্তি ফিরিয়েছিলো পাঞ্জাব। তাতেও কলকাতাকে রুখতে পারেনি পাঞ্জাব। শেষ দিকে অধিনায়ক দিনেশ কার্তিকের ৯ বলে করা ২১ রানের মিনি ঝড় ১৮ ওভারেই এনে দেয় ফল। তাতে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে কলকাতা। ম্যাচসেরা শুবমান গিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here