রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার মার্কিন সমকক্ষ ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বলেছেন, একমাত্র ভেনিজুয়েলার জনগণ সেদেশের ভবিষ্যত নির্ধারণ করবে অন্য কেউ নয়। তিনি শুক্রবার রাতে এক টেলিফোনালাপে ট্রাম্পকে আরো বলেন, বাইরে থেকে হস্তক্ষেপ করে ভেনিজুয়েলার সরকার পরিবর্তনের চেষ্টা করা হলে রাজনৈতিক উপায়ে দেশটির সংকট সমাধানের প্রক্রিয়া মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ভেনিজুয়েলার বিরোধী পক্ষকে দিয়ে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর নির্বাচিত সরকার উৎখাতের চেষ্টা চালিয়ে আসছে আমেরিকা। গত সপ্তাহে মুষ্টিমেয় কিছু সেনা সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুয়াইদো সামরিক অভ্যুত্থানের যে চেষ্টা করেন মূল সেনা কমান্ডের সহযোগিতায় তা ব্যর্থ করে দিয়েছে মাদুরো সরকার।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সম্প্রতি ভেনিজুয়েলায় প্রয়োজনে সামরিক হস্তক্ষেপ করারও হুমকি দিয়েছেন। টেলিফোনালাপে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন মূলত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে পরোক্ষভাবে এ ধরনের কোনো হস্তক্ষেপের ব্যাপারে সতর্ক করে দিলেন।

ট্রাম্প প্রশাসন মাদুরো সরকারকে উৎখাতের চেষ্টা করলেও রাশিয়া এবং চীন মাদুরো সরকারের প্রতি প্রকাশ্য সমর্থন ঘোষণা করেছে।

এদিকে পুতিন ও ট্রাম্প তাদের ফোনালাপে রাশিয়া, চীন ও আমেরিকার মধ্যে ত্রিপক্ষীয় পরমাণু চুক্তির সম্ভাব্যতা নিয়ে আলোচনা করেন।  টেলিফোনালাপ শেষে এক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প এই সংলাপকে ‘দীর্ঘ ও অত্যন্ত চমৎকার’ বলে অভিহিত করেছেন। তিনি দাবি করেছেন, রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি আমেরিকার স্বার্থ রক্ষা করবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here