১৯৯৫ সালে সবশেষ ঘরের মাঠে তুরিন ডার্বি হেরেছিল জুভেন্টাস। অজেয় থাকার সেই রেকর্ডটা শুক্রবার হুমকির মুখে পড়ে গিয়েছিল তাদের। তবে তা হতে দেননি ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। এই পর্তুগিজের লক্ষ্যভেদে নগরপ্রতিপক্ষ তোরিনোর সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে মাঠে ছেড়েছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা।

সিরি ‘আ’-এর এবারের মৌসুমের শিরোপাও বেশ আগেই নিশ্চিত করেছে জুভেন্টাস। তাইতো এ টুর্নামেন্টকে এখন আর খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছে না দলটি। অন্তত শুক্রবারের খেলায় সেটাই প্রমাণ করেছে দলটি। তাইতো এদিন ১৮তম মিনিটেই নিজেদের ভুলে গোল হজম করে স্বাগতিকরা। মিরালেম পিয়ানিচের থেকে বল কেড়ে নিয়ে ডান পায়ের শটে জাল খুঁজে নেন সার্ব মিডফিল্ডার সাসা লুকিচ। এর দুই মিনিরট পরই অবশ্য সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল স্বাগতিকরা। কিন্তু রোনালেদোর বাড়ানো বল ধরে প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক বরাবর ঠিকমতো শট নিতে পারেননি ফরাসি মিডফিল্ডার ব্লেইস মাতুইদি।

বিরতির পর দ্রুতই সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েছিল জুভেন্টাস। কিন্তু কর্নারে বল জায়গা মতো পেয়ে হেড করতে পারেননি রোনালদো। এর একটু পর আবার তিনি পেনাল্টি স্পটের কাছে ফাঁকায় বল পেয়ে নিয়ন্ত্রণেই নিতে পারেননি। তাতে স্বাগতিক সমর্থকরা হতাশ হয়ে পড়েন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ম্যাচের ৮৪তম মিনিটে দলকে কাঙ্ক্ষিত গোল এনে দেন রোনালদো। বাঁ দিক থেকে ইতালিয়ান ডিফেন্ডার লিওনার্দো স্পিনাস্সোলার ক্রসে লাফিয়ে নেওয়া হেডে দলের হার এড়ানো গোলটি করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। এবারের লিগে রোনালদোর এটি ২১তম গোল। ক্লাব ফুটবলে তার মোট গোল হলো ৬০১টি।

এ ড্রয়ে ৩৫ ম্যাচে জুভেন্টাসের পয়েন্ট ৮৯। অন্যদিকে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে তোরিনো।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here