চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) বিরাট কোহলির দল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ফ্যান গার্ল দীপিকা ঘোষ রাতারাতি তারকা বনে গেছেন। গুগল সার্চে এই তরুণী পেছনে ফেলে দিয়েছেন এশিয়ার সেরা আবেদনময়ী, বলিউডের তারকা অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনকে।

গুগলে কেউ যদি ‘দীপিকা’ টাইপ করেন, তবে প্রথমেই আসবে ‘দীপিকা ঘোষ’, পরে অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের নাম।

রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ম্যাচ চলাকালে বহুবার দীপিকা ঘোষের দিকে ক্যামেরা তাক করা হয়, সেই দৃশ্য দেখেন সবাই, আর রাতারাতি তারকা বনে যান। অন্তর্জালে এখন লাগাতার খোঁজ চলছে তাঁর।

এখন দীপিকা ঘোষ ‘আরসিবি ফ্যান গার্ল’ হিসেবে সুপরিচিত। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁর অনুসরণকারীর সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। একই সঙ্গে অগণিত মানুষ এই তরুণী সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে গুগলে খোঁজ করে চলেছেন।

অনলাইন সার্চের রেট এতটাই বেড়েছে যে কেউ যদি গুগলে ‘দীপিকা’ লেখেন, তবে প্রথমেই দেখা যাবে ‘দীপিকা ঘোষ’, দ্বিতীয়বারও ‘দীপিকা ঘোষ’ এবং তৃতীয় স্থানে আসছে ‘দীপকা পাড়ুকোন’।

যদিও এই সার্চ রেজাল্ট ক্ষণস্থায়ী, তবে বলিউডের শীর্ষ অভিনেত্রীর ওপরে চলে আসায় এই তরুণী সম্পর্কে আগ্রহ বাড়ছে। এর অর্থ অবশ্য এই নয় যে, গুগলে দীপিকা পাড়ুকোনের চেয়ে বেশিবার খোঁজ করা হয় দীপিকা ঘোষকে।

ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে দীপিকা ঘোষের অনুসরণকারী এখন প্রায় তিন লাখ। দ্রুতই তাঁর অ্যাকাউন্ট ভেরিফায়েড হয়েছে। ‘আরসিবি ফ্যান গার্ল’ নামে বেশ কয়েকটি ফ্যান পেজও খোলা হয়েছে।

এর আগেও খুব সাধারণ অবস্থা থেকে অন্তর্জাল তারকা হওয়ার উদাহরণ রয়েছে। গত বছর মাত্র একটি চোখ মারার দৃশ্য দিয়ে অন্তর্জাল সেলিব্রেটি হয়ে গিয়েছিলেন মালয়ালাম অভিনেত্রী প্রিয়া প্রকাশ ভ্যারিয়ার। বিনোদন দুনিয়ায় প্রিয়া এখন সবচেয়ে পরিচিত মুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here