আবারো ক্যারিবীয়দের উড়িয়ে দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে টাইগাররা। ক্যারিবিয়ানদের ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে করা ২৪৭ রান কঠিন হতেও দেননি ব্যাটসম্যানরা। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সৌম্য টানা দ্বিতীয় হাফসেঞ্চুরি পূরণ করার পর মুশফিকের ফিফটিতে ১৬ বল আগেই ৫ উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

দুর্দান্ত এ জয় কঠোর পরিশ্রমের ফল বলে মন্তব্য করেছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। সোমবার ( ১৩ মে) রাতে ম্যাচ শেষে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

মাশরাফি বলেন, ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে খেলতে এই ম্যাচটিতে জয় পাওয়া আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা কঠোর পরিশ্রম করার ফল পেয়েছি। আশা করি শিরোপা জিততে পারব।

তিনি বলেন, আমরা আজ দারুণ বোলিং করেছি। সৌভাগ্যক্রমে ব্রেক থ্রু পেয়ে যাই। ইনিংসে মুস্তাফিজ খুব ভালো বোলিং করেছে। সাকিব-মিরাজরাও খারাপ করেনি।

প্রসঙ্গত, সোমবার আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনের দ্যা ভিলেজ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও উইন্ডিজ। টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ক্যারিবীয় দলের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মুস্তাফিজ-মাশরাফির গতির মুখে পড়ে ২৪৭ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে গুটিয়ে যায় ক্যারিবীয়রা। সহজ টার্গেট তাড়া করতে নেমে সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিমের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১৬ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটে জয় পায় বাংলাদেশ। এদিন সৌম্য সরকার ৬৭ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৫৪ রান করেন। আর ৭৩ বলে ৫ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় মুশফিক করেন ৬৩ রান। এর আগে, ৭ মে সিরিজে নিজেদের প্রথম ম্যাচে উইন্ডিজবাহিনীকে হেসে খেলে হারালে বাংলাদেশের ছেলেরা। ২৬২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় মাশরাফি বাহিনী।

আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে এই ‍উইন্ডিজের বিপক্ষেই খেলবে বাংলাদেশ। শুক্রবার (১৭ মে) শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে ডাবলিনেই মুখোমুখি হবে দল দুটি। এর আগে অবশ্য রবিন রাউন্ড লিগের ফিরতি খেলায় বুধবার (১৫ মে) মাশরাফিরা নামবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here