পশ্চিম আফ্রিকার দেশ নাইজারে জঙ্গি হামলায় ১৭ সেনা নিহত হয়েছে। হামলার পর থেকে এখনও নিখোঁজ রয়েছে আরো ১১ সেনা। এক সরকারি মুখপাত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি। মালি সীমান্তের কাছে নাইজারের পশ্চিমাঞ্চলীয় টোংগো টোংগো গ্রামে সেনাদের গোপন অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালায় জঙ্গিরা।

এর আগে ২০১৭ সালে ওই একই স্থানে চার মার্কিন সেনাকে হত্যা করেছিল জঙ্গিরা। নাইজার এবং সাহেল অঞ্চলের বেশ কিছু দেশে ইসলামি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর তৎপরতা বেড়ে গেছে। ওই অঞ্চলে আল কায়েদার শাখা আল কায়েদা ইন দ্য ইসলামিক মাগরেব (আকিম) বেশ সক্রিয়। তারা প্রায়ই সীমান্তে হামলা চালিয়ে থাকে। তবে তারা সবচেয়ে বেশি সক্রিয় প্রতিবেশী মালিতে। সেখানে ২০১৩ সাল থেকে জঙ্গিদের প্রতিহত করতে দেশটির সেনাবাহিনীর সঙ্গে কাজ করছে ফরাসি সেনারা।

জাকারিয়া বিবিসিকে বলেন, সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি প্রথমে একটি ল্যান্ডমাইনের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিস্ফোরণ ঘটে। এরপরই সেখানে আমাদের সেনাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে জঙ্গিরা। তিনি বলেন, দু’বছর আগে যেখানে মার্কিন ও নাইজারের সেনাদের হত্যা করা হয়েছিল তার কাছেই ওই হামলা চালানো হয়েছে।

হামলায় আহত ছয় আহত সেনাকে রাজধানী নিয়ামির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সাহেল অঞ্চলের পাঁচটি দেশ জঙ্গিবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে নাইজার। বাকি দেশগুলো হলো, বুরকিনা ফাসো, চাদ, মালি এবং মৌরিতানিয়া।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here