স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা ইতোমধ্যেই ঘরে তুলেছে বিশ্বের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী ক্লাব বার্সেলোনা। তবে লিগের শেষ ম্যাচটা পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই সন্তুষ্ট থাকতে হলো কাতালানদের। তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষ্য এইবারের সঙ্গে ড্র করে মাঠ ছেড়েছে কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দের শিষ্যরা।

রবিবার (১৯ মে) রাতে এইবারের মাঠ ইপুরুয়া মুনিসিপাল স্টেডিয়ামে দুদলের মধ্যকার ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়। বার্সার মেসির জোড়া গোলের বিপরীতে এইবারের হয়ে গোল করে ব্যবধান কমান কার্ক কুকুরেয়া এবং পাবলো দে ব্লাসিস।

এই ম্যাচে মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন কোচ আরনেস্তো ভালভার্দে। আক্রমণে লুইস সুয়ারেজও পেয়েছেন প্রয়োজনীয় ছুটি। ফিলিপে কুতিনহোর পরিবর্তে ম্যালকমের সুযোগ পাওয়াকে কুতিনহোর বিশ্রাম বলা যাবে কি না এ নিয়ে দ্বিধান্বিত হবেন বার্সেলোনা সমর্থকেরাও। তবে ভালভার্দের অন্য সব ম্যাচের মতো আজও সব দায়িত্ব মেসিকেই বুঝে নিতে হয়েছে। ৩১ মিনিটে গোলরক্ষকের শরীরের নিচ দিয়ে গোল করেছেন। পরের মিনিটেই করেছেন উল্টোটা। গোলরক্ষককে ফাঁকি দিতে এবার চিপ করেছেন মেসি। এ চিপেই মৌসুমে গোলের ফিফটি করলেন মেসি।

তবে ম্যাচে মেসিই একমাত্র বার্সেলোনা খেলোয়াড় নন যিনি গোল করেছেন। ২০ মিনিটেই প্রথম গোলের দেখা মিলেছে। এইবারের হয়ে চমৎকার গোলটি করেছেন মার্ক কুকুরেয়া। বার্সেলোনার একাডেমির এই লেফট ব্যাক ধারে খেলতে এসে এইবারের হয়ে অসাধারণ এক মৌসুম কাটালেন। তারই পরিপূর্ণতা দিল মৌসুম শেষে নিজের মূল দলের বিপক্ষে করা এই গোল। ৪৫ মিনিটে বার্সেলোনা গোলরক্ষক চিলেসেনের ভুলে এইবারকে ম্যাচে ফিরিয়েছেন পাবলো দি ব্লাসিস।

দ্বিতীয়ার্ধেও মেসি ও তার দলবল গোলের জন্য হন্যে হয়ে ছুটেছে। কিন্তু এইবার বার্সেলোনাকে জয় নিয়ে লিগ মৌসুম শেষ করতে দেয়নি। আগামী শনিবার ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে কোপা দেল রের ফাইনালের আগে তাই এটুকু অতৃপ্তি রয়েই গেল বার্সেলোনার।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here