ইংল্যান্ড সিরিজই বদলে দিল সব। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সদ্য শেষ হওয়া সিরিজে প্রতিটি ম্যাচইহেরেছে পাকিস্তান। ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা জুনায়েদদের পাড়ার বোলারদের পর্যায়েই নামিয়েএনেছেন! তবে কোপটা শেষ পর্যন্ত গেছে জুনায়েদ ও পেস বোলিং অলরাউন্ডার ফাহিম আশরাফেরওপর।

বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন আবিদ আলী, ফাহিম আশরাফ ও জুনায়েদ খান। দলে ডাক পেয়েও আবার বাদ পড়বেন, কোনভাবেই মেনে নিতে পারেননি জুনায়েদ খান। টুইটারে জানিয়েছেন নিরব প্রতিবাদ!

পাকিস্তানি পেসার জুনায়েদ খান বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়ার খবর শুনে মানতে পারেননি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে করেছেন অভিনব প্রতিবাদ। নিজের মুখে কালো টেপ লাগিয়ে যেনো বুঝাতে চেয়েছেন তার মুখ বন্ধ। এমন ছবি আপলোড দিয়ে জুনায়েদ খান ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমি কিছু বলতে চাই না। সত্য কথা সবসময় তিক্ত।’

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্রই পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৪-০ তে হেরেছে পাকিস্তান। ব্যাটসম্যানরা রান পেয়েছেন, প্রথম তিন ম্যাচেই পাকিস্তান ৩৪০ এর বেশি রান করেছে। শেষ ম্যাচেও ৩০০ ছুঁই ছুঁই রান ছিল। কিন্তু প্রতিটা ম্যাচেই হেরেছে পাকিস্তান। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের সামনে দাঁড়াতেই পারলো না পাকিস্তানি বোলাররা।

দলে এসেছেন মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ ও আসিফ আলী। তবে চমক হয়ে এসেছে ওয়াহাব রিয়াজের নাম। তাঁকে জায়গা দিতে গিয়ে সরে যেতে হয়েছে জুনায়েদ খানকে।

পাকিস্তানের পরিবর্তিত বিশ্বকাপ দলঃ

সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), ফখর জামান, ইমাম-উল-হক, আসিফ আলী, বাবর আজম, হারিস সোহেল, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ হাফিজ, শাদাব খান, ওয়াহাব রিয়াজ, ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আমির, হাসান আলী, শাহিনশাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ হাসনাইন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here