ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর অনুযায়ী বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট তিন শতাধিক আসনে এগিয়ে রয়েছে। মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, উত্তর প্রদেশ, বিহার, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, দিল্লি আর মুম্বাইয়ে এখন পর্যন্ত গণনা থেকে ধারণা করা হচ্ছে দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসছে বিজেপি।

সাত দফায় অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে ১৯ মে। ১৪টি বুথফেরত জরিপের মধ্যে ১২টি-ই আভাস দিয়েছে আবারও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গড়তে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। জরিপগুলোতে ওই জোটের ২৮২ থেকে ৩৬৫টি আসন পাওয়ার আভাস মিলেছে। ‌তবে বুথফেরত জরিপকে বিজেপিপন্থী স্টাবলিশমেন্টের কারসাজি হিসেবে দেখছে বিরোধীরা। তাদের কেউ কেউ দাবি করেছে, ইভিএম কারসাজির মধ্য দিয়ে ফল বদলে দিতে পারে ক্ষমতাসীনরা। সেই ফল জায়েজ করতে এই জরিপকে উদাহরণ হিসেবে হাজির করতে পারে তারা। এমন সংশয়ের মধ্যে বৃহস্পতিবার (২৩ মে) কড়া নিরাপত্তায় লোকসভার পাঁচ শতাধিক আসনে ভোটগণনা চলমান রয়েছে।

লোকসভার ৫৪৩টি আসনের মধ্যে এবার ৫৪২টি আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিউজ এইটিন প্রকাশিত ভোটের লাইভ ফল থেকে দেখা যায়, এককভাবে বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ২৮৭টি আসনে। জোটগতভাবে তারা এগিয়ে রয়েছে ৩৪১টি আসনে। কংগ্রেস এককভাবে এগিয়ে রয়েছে ৫৪টি আসনে। আর জোটগতভাবে তারা এগিয়ে রয়েছে ৯৩টি আসনে। আর অন্য দলগুলো ১০৮টি আসনে এগিয়ে রয়েছে।

এনডিটিভিতে প্রকাশিত ভোটের লাইভ ফল থেকে দেখা যায়, ৫৪২টি আসনের মধ্যে ৩২১টি আসনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট। কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট এগিয়ে রয়েছে ১১০টি আসনে। অন্যরা এগিয়ে রয়েছে ১১১টি আসনে।

আমেথি থেকে লড়ছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। সেখানে তিনি স্মৃতি ইরানির থেকে পিছিয়ে থাকলেও সার্বিকভাবে কংগ্রেসের পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here