আইসিসি ওয়ানডে ব়্যাঙ্কিংয়ে দলের অবস্থান ১০ নম্বরে হলেও বিশ্বকাপে শক্তিশালী দলগুলোকে ধাক্কা দিতে তৈরি আফগানিস্তান! টুর্নামেন্টের মূল প্রতিযোগিতায় নামার আগে প্রস্তুতি ম্যাচে সেকথাই যেন বুঝিয়ে দিল রশিদ-মোহাম্মদ নবিরা। ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে প্রতিবেশি পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে আফগানরা।

ইংল্যান্ডের কাছে ৪-০তে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর আফগানিস্তানের কাছেও হারল পাকিস্তান। ফলে বিশ্বকাপের আসল লড়াইয়ের আগে চাপেই থাকল সরফরাজ আহমেদের দল। আগামী রোববার বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামার সময় কোমরে জোর একটু কম থাকবে তাদের।

এদিন টস জিতে আগে ব্যাট করে ১৩ বল বাকি থাকতেই ২৬২ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। জবাবে হাশমতুল্লাহ শহিদীর অপরাজিত ৭৪ রানে ভর করে ২ বল আর ৩ উইকেট হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় আফগানিস্তান।

প্রস্তুতি ম্যাচ বলে এগারো জনের বেশি খেলোয়াড় খেলার সুবিধা ছিল। পাকিস্তান সেই সুবিধা নিয়েছে। মোহাম্মদ আমির ও শাহিন শাহ আফ্রিদি ব্যাটিং না করলেও বোলিং করেছেন।

ব্যাটিংয়ে বাবর আজম তুলে নেন সেঞ্চুরি। ১০৮ বলে ১০ চার ও ২ ছক্কায় ১১২ রান করেন। শোয়েব মালিকের ব্যাট থেকে আসে ৪৪ রান। এ ছাড়া ইমাম-উল-হক ৩২ রান করেন। বাকিরা ছিলেন ব্যর্থ।

আফগানদের পক্ষে মোহাম্মদ নবী সর্বাধিক ৩ উইকেট নিয়েছেন। ২টি করে উইকেট নেন দৌলত জাদরান, রশিদ খান।

জবাব দিতে নেমে আফগানিস্তান শুরুতে ধাক্কা খায়। বাঁ-হাঁটুতে চোট পেয়ে রিটায়ার্ড হার্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন মোহাম্মদ শাহজাদ (২৩)। তার আগে দারুণ শুরু করেছিলেন তিনি। শাহজাদের শুরু করে দেওয়া ধারাতেই এরপর ব্যাট করেছেন হজরতুল্লাহ জাজাই (৪৯), রহমত শাহ (৩২)।

তাতে ৩ উইকেটে দেড় শ পেরিয়ে আফগানরা জয়ের বার্তা দেয়। মাঝে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারালেও হাশমতউল্লাহ ছিলেন দুর্দান্ত। সাত নম্বরে নেমে মোহাম্মদ নবী খেলেছেন ৩৪ রানের কার্যকরী ইনিংস।

পাকিস্তানের পক্ষে ওয়াহাব রিয়াজ সর্বাধিক ৩ উইকেট নিয়েছেন। ২ উইকেট পেয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম। ১টি করে উইকেট নেন শাবাদ খান ও মোহাম্মদ হাসনাইন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here