দ্বিতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আগামী বৃহস্পতিবার (৩০ মে) শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদি। এ শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ যোগ দেবেন এবং বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন।

সরকারি একাধিক সূত্র জানিয়েছে, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের ওই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করার কথা ছিল। তবে সোমবার (২৭ মে) এতে পরিবর্তন আনা হয়। অবশ্য মোজাম্মেল হক বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলে থাকছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গতকাল রোববার (২৬ মে) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদি যখন শপথ নেন তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপানে ছিলেন। এবারও তিনি মোদির শপথ নেওয়ার সময় জাপান সফরে থাকবেন। তবে গতবার প্রধানমন্ত্রী জাপান সফরে থাকায় তার পরিবর্তে স্পিকার শিরীন শারমিন দিল্লিতে মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, এবার স্পিকারের পূর্বনির্ধারিত আরেকটি অনুষ্ঠান থাকায় তিনিও দিল্লি যেতে পারবেন না। ফলে এবার কেবিনেটের জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী হিসেবে মোজাম্মেল হক যাচ্ছেন মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here