যশোরের শার্শার দীঘায় মা ও তার দুই ছেলেমেয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সংসারে অভাবের কারণে মা তার দুই সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর নিজেও বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে স্থায়ী সূত্রে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাত ১২টার দিকে শার্শা উপজেলার চালিতা বাড়ীয়ার দীঘা গ্রামে।

নিহতরা ওই এলাকার চা-দোকানি ইব্রাহীমের স্ত্রী-সন্তান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অভাব অনটনে ঈদে সন্তানদের নতুন জামাকাপড় কিনে দিতে না পেরে ইব্রাহীমের স্ত্রী হামিদা খাতুন (৩৫) প্রথমে স্কুলপড়ুয়া মেয়ে শরিফা খাতুন (১১) ও সোহান হোসেনকে (৪) খাবারের সঙ্গে কীটনাশক (বিষ ট্যাবলেট) খাইয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে। এরপর নিজেও ঐ বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, অভাবের সংসারে ঝগড়া লেগেই থাকত। সামনের ঈদে সন্তানদের নতুন জামা কাপড় কেনাকাটাসহ সাংসারিক নানা বিষয় নিয়ে রোববার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তর্কাতর্কি হয়।

এক পর্যায়ে স্ত্রী হামিদা খাতুন নিজে মেয়ে শরিফা ও ছেলে সোহানকে বিষের ট্যাবলেট খাইয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে নিজেও একই ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মশিউর রহমান জানান, এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট ছাড়া বলা যাবে না। মৃত্যুর বিষয়টি রহস্যজনক বলে ধারণা করা হচ্ছে। সর্বশেষ এ ঘটনায় পুলিশ ৩জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here