সাম্প্রতিক সময়ে সিরিয়া ও ইরাকে মধ্যপ্রাচ্যভিক্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে মার্কিন জোটের অভিযানে প্রায় ১ হাজার ৩০০ এর বেশি বেসামরিক লোক মারা গেছে।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বিবিসি’র বরাত দিয়ে এমন খবর জানিয়েছে।

তবে, হামলায় এসব লোক নিহত হওয়ার ঘটনাকে অনিচ্ছাকৃত বলে দাবি করেছে মার্কিন জোট। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০১৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৩৪ হাজার ৫০২টি আক্রমণ চালিয়েছে মার্কিন জোট।

জোটের পক্ষ থেকে তাদের হামলায় এক হাজার ৩০০ বেসামরিক নিহতের কথা বললেও, এ সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে জানায় সংস্থাটি। তাদের দাবি এসব হামলায় প্রায় ১৩ হাজারের মতো বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে।

২০১৪ সালে জঙ্গী গোষ্ঠী আইএস সিরিয়া ও ইরাকের বিশাল একটা অংশ দখল করে খেলাফতের ঘোষণা দেয়। এতে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে আইএস ভীতি ছড়িয়ে পড়ে।

একে পুজি করে আইএস দমনে বেপরোয়া হামলা চালায় মার্কিন জোট। তাদের অভিযানগুলোতে নিহত বেসামরিকের যে সংখ্যা এবার প্রকাশ করেছে, তা আট মাস আগে তাদের দাবি করা নিহতের সংখ্যা থেকে কিছু বেশি। তখন তাদের অভিযানগুলোতে মোট এক হাজার ১০০ বেসামরিক নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছিল তারা।

মার্কিন জোট এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা এখনো ১১১টি সম্ভাব্য বেসামরিক নিহতের ঘটনা পর্যালোচনা করে দেখছে।

মার্কিন জোটের প্রকাশিত নিহত বেসামরিকের সর্বশেষ এ সংখ্যা মানবাধিকার সংস্থা ও পর্যবেক্ষক গোষ্ঠীগুলোর দাবি করা নিহতের সংখ্যা থেকে অনেক কম। নিহতের প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে জানিয়েছে ওই গোষ্ঠীগুলো।

গত মাসে অধিকার আন্দোলনকারী গোষ্ঠীগুলোর তাদের চালানো এক তদন্তের ফলাফলে জানায়, শুধু ২০১৭ সালেই সিরীয় শহর রাকা থেকে আইএসকে হটানোর লক্ষ্যে অভিযানে এক হাজার ৬০০ জনেরও বেশি বেসামরিক নিহত হয়। রাকা ছিল আইএসের স্বঘোষিত খিলাফতের ‘রাজধানী’ ছিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here