বাংলাদেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নে চীনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

চীন বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার ও  অকৃত্রিম বন্ধু উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের সাথে চীনের সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার করা হবে। বাংলাদেশের সাথে চীনের উন্নয়ন অংশীদারিত্ব দিন দিন শক্তিশালী হচ্ছে। ভবিষ্যতে উন্নয়ন সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সোমবার স্পিকারের কার্যালয়ে  চীনের রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং ঝুও সাক্ষাৎ করতে আসতে শিরিন শারমিন এসব কথা বলেন।

তারা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন, বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়ন ও সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ গঠন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

দু’বার চীন সফরের স্মৃতিচারণ করে শিরীন শারমিন বলেন, সফরে ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস অব চীনের স্পিকার তাকে বেইজিংয়ে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। বাংলাদেশের উন্নয়নে চীন বেশ আন্তরিক। ভবিষ্যতে দুদেশের সংসদ সদস্যদের সফরের বিনিময়ে এ সম্পর্কে নতুন মাত্রা যোগ হবে।

বাংলাদেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নে চীনের ভূমিকার প্রশংসা করে স্পিকার বলেন, পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুদেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। আঞ্চলিক সংযোগ বৃদ্ধি এ অঞ্চলের সকল দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি বয়ে আনবে।

আগামী জুন মাসে ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস অব চীনের ভাইস চেয়ারম্যান বাংলাদেশ সফর করবেন বলে চীনের রাষ্ট্রদূত স্পিকারকে অবহিত করেন। ভাইস চেয়ারম্যানের সফরকে স্বাগত জানিয়ে তাকে সকল ধরনের সহযোগিতা ও সহায়তা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন শিরীন শারমিন।

দুদেশের সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী গ্রুপের মাধ্যমে আইন প্রণয়নসহ সংসদীয় অন্যান্য কার্যক্রমে উভয় দেশই উপকৃত হতে পারে বলে রাষ্ট্রদূত দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। শিগগিরই বাংলাদেশ সংসদীয় প্রতিনিধিদলকে আনুষ্ঠানিকভাবে চীন সফরের আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে তিনি জানান।

বৈঠকে বাংলাদেশস্থ চীন দূতাবাসের পরিচালক ঝেং তিয়ানঝু এবং সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here