ঠিক বোঝা যাচ্ছে না। গোটা বিশ্বই ধোঁয়াশায়। বুঝতে পারছে না মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসাও। তবে এটুকু সবাই বুঝেছে যে, নাসার ওপর ভীষণ চটেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আর তাই চাঁদে অভিযান নিয়ে নাসাকে টুইটারে তুলোধনা করেছেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের ভাষায়, আবারও চাঁদের মাটিতে যাচ্ছে বলে নাসা যে প্রচার শুরু করেছে; তা বন্ধ হওয়া উচিত। তার দাবি, চাঁদ হচ্ছে মঙ্গলগ্রহেরই একটি অংশ।

এ বিষয়ে করা টুইটে ট্রাম্প লিখেন, আমরা এতো টাকা খরচ করছি, চাঁদে যাওয়ার আলোচনা বন্ধ করা উচিত নাসার। আমরা ৫০ বছর আগেই চাঁদে গিয়েছি। আরও বড় লক্ষ্যের দিকে তাকিয়ে কাজ করছি আমরা। নাসার উচিত সেদিকে মনোনিবেশ করা। যেমন মঙ্গলগ্রহ (মঙ্গলগ্রহেরই একটি অংশ চাঁদ), প্রতিরক্ষা ও বিজ্ঞান!

কয়েক দিন আগে নাসা জানিয়েছিল, ২০২৪ সালের মধ্যে ফের চাঁদের মাটিতে পা রাখতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। হোয়াইট হাউস নাসার বক্তব্যে সম্মতিও জানায়। কিন্তু শুক্রবার হঠাৎ ট্রাম্প নাসাকে সরাসরি আক্রমণ করেন। হঠাৎ এমন আক্রমণে কেউই কিছু বুঝতে পারেনি। কূলকিনারা পাচ্ছে না নাসাও।

উল্লেখ্য, গত এপ্রিল মাসে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ঘোষণা দেন যে, ২০২৪ সালের মধ্যেই চাঁদে পাড়ি দেবে যুক্তরাষ্ট্র। তবে নাসার প্রশাসক জিম ব্রাইডেনস্টেইন আরও একধাপ এগিয়ে জানান, এবার তারা চাঁদে শুধু পা রাখবেন না। বসবাসেরও ব্যবস্থা করা হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here