ভারতে প্রবল ধুলিঝড় ও বজ্রপাতে কমপক্ষে ২৬ জন প্রাণ হারিয়েছে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগে আহত হয়েছেন আরো ৫৭ জন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের বিভিন্ন অংশে এই ঝড় হয় বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

প্রবল ঝড়ে প্রচুর ঘর-বাড়ি ও গাছপালা ভেঙে পড়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। ঝড়ে সব থেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে রাজ্যের মইনপুরি জেলা। রাজ্য ত্রাণ কমিশনের পক্ষ থেকে উদ্ধার কাজ চালানোর পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় ত্রাণ পৌঁছে দেওয়ার কাজ চলছে।

রাজ্য প্রশাসনকে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে সবরকম সাহায্য পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। ঝড়ে নিহতদের পরিবার প্রতি চার লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার রাজ্য ত্রাণ কমিশনারের পক্ষ থেকে এ সম্পর্কে একটি বিবৃতিও প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ধুলিঝড়ের ফলে বাড়ি ভেঙে ও প্রবল বজ্রপাতের ফলে মইনপুরি জেলায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃষ্টি ও ঝড়ের ফলে বিভিন্ন জায়গায় বাড়ি ও গাছ ভেঙে পড়ার কারণে জখম হয়েছেন আরো ৫৭ জন।

রাজ্যের সড়কগুলিতে গাছ ভেঙে পড়ায় বহুক্ষণ বন্ধ ছিলো যান চলাচল। বহু জায়গায় রাস্তার ধারে থাকা হোডিং ও সাইনবোর্ড খুলে পড়ে জখম হয়েছেন অনেকে।

মইনপুরির পাশাপাশি এটাহ‌ এবং কাসগঞ্জ জেলায় প্রাণ হারিয়েছেন ছ’জন। ফারুখাবাদ ও বারাবাঁকিতে দু’জন করে চারজন। আর মোরাদাবাদ, বদায়ুঁ, পিলভিট, মথুরা, কনৌজ, সম্ভল‌, গাজিয়াবাদ, আমরোহা ও মাহোবা জেলায় মৃত্যু হয়েছে মোট ১০ জনের। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় যে লখনউ-সহ রাজ্যের নানা জায়গায় বহুক্ষণ লোডশেডিং ছিল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঝড় শুরুর সময় বেশিরভাগ মানুষই ঘরের মধ্যে ঘুমোচ্ছিলেন। আচমকা প্রবল ধুলোঝড়ের সঙ্গে বৃষ্টি শুরু হওয়ার ফলে কাঁচা বাড়ির দেওয়াল ভেঙে পড়ায় আহত হয়েছে আরো বহু মানুষ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here