এবারের বিশ্বকাপ এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি অপ্রত্যাশিত ফল দেখেছে। তবে মোটা দাগে সব ম্যাচেই নির্দিষ্ট একটি দলের গায়ে ছিল ফেভারিটের তকমা। সেই ধারায় আজ ছেদ পড়ছে।

লন্ডনের দ্য ওভালে আসরের প্রথম ব্লকবাস্টার ম্যাচে আজ দেখা হচ্ছে দুই ফেভারিট অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের। বর্তমান ও সাবেক দুই চ্যাম্পিয়নের অগ্নিগর্ভ লড়াই নিঃসন্দেহে বিশ্বকাপের টিআরপি বাড়িয়ে দেবে।

দু’দলই এবারের আসরে এখন পর্যন্ত অপরাজিত। ভারত অবশ্য খেলেছে একটি ম্যাচ। দক্ষিণ আফ্রিকাকে ছয় উইকেটে হারিয়ে ফেভারিটের মতোই বিশ্বকাপ শুরু করেছে ১৯৮৩ ও ২০১১ আসরের চ্যাম্পিয়নরা।

অন্যদিকে রেকর্ড পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে হারিয়েছে আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। আসল পরীক্ষাটা আজ দিতে হবে অ্যারন ফিঞ্চের দলকে। বিশ্বকাপের শেষ পাঁচ আসরে ভারতই একমাত্র দল যারা শিরোপা বঞ্চিত করতে পেরেছে অস্ট্রেলিয়াকে (২০১১ আসরে)।

ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে ভারত এগিয়ে থাকলেও বিশ্বকাপ মঞ্চে চিরকালের ফেভারিট অস্ট্রেলিয়া। একদিবসী ক্রিকেটে দু’দলের আগের ১৩৬ ম্যাচে ভারতের ৪৯ জয়ের বিপরীতে অস্ট্রেলিয়ার জয় ৭৭টি। বাকি ১০টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে। বল টেম্পারিং কাণ্ডের জেরে মাঝে পথ হারালেও এ বছর দারুণভাবেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

গত মার্চে ভারতের মাটিতে ৩-২ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জিতে শুরু হয় তাদের নবযাত্রা। টানা ১০টি ওয়ানডে জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে আজ ভারতের বিপক্ষে নামছে অস্ট্রেলিয়া। বিরাট কোহলির ভারতও আছে দারুণ ছন্দে। তারকা দ্যুতিতে কেউ পিছিয়ে নেই। আসল লড়াইয়ের মধ্যে থাকছে জমজমাট কিছু খণ্ড লড়াই।

একদিকে বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা, অন্যদিকে স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। পেস বোলিংয়ে মিচেল স্টার্ক ও জাসপ্রিত বুমরাহর লড়াইটাও কম চিত্তাকর্ষক নয়। ঘূর্ণির লড়াইয়ে অবশ্য ভারতের যুজবেন্দ্র চাহালের সমকক্ষ বলা যাবে না অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডাম জাম্পাকে।

দু’দলের দুর্বলতার জায়গাতেও আছে মিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সত্যিকারের পরীক্ষা দিতে হয়নি ভারতের বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইনআপকে। প্রোটিয়াদের ২২৭ রানে বেঁধে ফেলে ৮০ ভাগ কাজ বোলাররাই সেরে রেখেছিলেন।

হার না মানা সেঞ্চুরিতে বাকিটা সারেন রোহিত শর্মা। তবে বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে শর্ট বলের পরীক্ষায় ডাহা ফেল করেছিলেন ভারতের ব্যাটসম্যানরা। উইকেট থেকে একটু সহায়তা পেলে অস্ট্রেলিয়ার দুই গতি তারকা স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স আজ কাঁপিয়ে দিতে পারেন ভারতকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আগের ম্যাচে আসরের প্রথম বোলার হিসেবে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন স্টার্ক।

বে শর্ট বল নিয়ে অস্ট্রেলিয়াও আছে অস্বস্তিতে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিন গতিময় পেসার বিষাক্ত বাউন্সারে ধসিয়ে দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার টপঅর্ডার। ৩৮ রানে চার উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়াকে শেষ পর্যন্ত ২৮৮ রানে পুঁজি এনে দেন স্মিথ ও নাথান কোল্টার-নাইল।

পেস বোলিং অলরাউন্ডার কোল্টার-নাইল স্রোতের বিপরীতে ৬০ বলে ৯২ রানের ঝড়ো ইনিংস না খেললে পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হতো চ্যাম্পিয়নদের। শর্ট বলে দলের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাকে সতর্কবার্তা হিসেবে দেখছেন অস্ট্রেলিয়ার সহকারী কোচ ও সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং। ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে ভারতের বিপক্ষে জমাট ব্যাটিংয়ের টোটকা খুঁজছেন তিনি।

পন্টিংয়ের ধারণা, অস্ট্রেলিয়াকে শর্ট বলে ঘায়েল করতে ভারতও তিন পেসার খেলাবে। ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ বোলার বুমরাহকেই সবচেয়ে বড় হুমকি মনে করছেন পন্টিং। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রীতিমতো আগুন ঝরিয়েছেন বুমরাহ।

ওভালের মন্থর উইকেটে স্পিন ধরলে চাহালও ধসিয়ে দিতে পারেন অস্ট্রেলিয়াকে। ভারতের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ার মিডল ও লোয়ার অর্ডারের গভীরতা কম। মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো পরীক্ষিত কোনো ফিনিশার নেই তাদের।

অন্য একটি কারণে আজ ধোনির দিকে দৃষ্টি থাকবে সবার। আগের ম্যাচে নিজের কিপিং গ্লাভসে ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিশেষ কমান্ডো ইউনিটের চিহ্ন ব্যবহার করে নতুন এক বিতর্ক উসকে দিয়েছেন ধোনি।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে আইসিসি সাফ জানিয়ে দিয়েছে, গ্লাভসে এ ধরনের চিহ্ন ব্যবহার করতে পারবেন না ধোনি। ধারণা করা হচ্ছে, আজ অন্য গ্লাভস ব্যবহার করবেন তিনি। অন্যথায় শাস্তির মুখে পড়তে হবে ধোনিকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here