প্রথমবার আয়োজিত উয়েফা নেশনস লীগের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে এ শিরোপা জিতে নিল পর্তুগিজরা। ২০১৬’র ইউরো জয়ের পর দ্বিতীয়বারের মত আন্তর্জাতিক শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেন রোনালদো ও তার সতীর্থরা।

গত ইউরো ও বিশ্বকাপের মূল পর্বে যেতে ব্যর্থ হওয়া নেদারল্যান্ডস যেন নিজেদের নতুনভাবে খুঁজে পায় উয়েফা নেশনস লীগে। সেমিফাইনালে ইংলিশদের হারিয়ে তারা ফাইনালে উঠে। পোর্তোয় নিজেদের মাঠে সে নেদারল্যান্ডসকেই ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পর্তুগাল।

পোর্তোর মাঠ স্তাদিও দো দ্রাগাওয়েতে ডাচদের আতিথ্য দিয়েছে পর্তুগিজরা। ম্যাচটি ৪-১-৪-১ ফর্মেশনে খেলতে নামে পর্তুগাল। অন্যদিকে ডাচরা রণকৌশল সাজায় ৪-৩-৩ ফর্মেশনে। ম্যাচের বেশিরভাগ সময়ই পর্তুগিজদের আক্রমণ ঠেকাতে ব্যস্ত থাকতে হয় ডাচ রক্ষণভাগকে।

তবে প্রথমার্ধ গোলশুন্যই শেষ হয়। ম্যাচের একমাত্র গোলটি আসে ৬০ মিনিটে। বের্নার্দো সিলভার বুদ্ধিদীপ্ত কাটব্যাকটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দারুণ শটে বল জালে জড়ান ভ্যালেন্সিয়ার উইঙ্গার গেদেস। একমাত্র গোলটিতেই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারিত হয়। দুর্দান্ত কাটব্যাকটিই যেন পুরো ম্যাচে সেরা পারফর্মারের গল্প বলে দিয়েছে। গোলটির জোগানদাতা সিলভাই ছিলেন মূলত মাঠে পর্তুগালের হয়ে সবচেয়ে উজ্জ্বল তারকা।

পিছিয়ে পড়ার পর ম্যাচে ফেরার বেশ কিছু চেষ্টা দেখা যায় ডাচদের তরফ থেকে। পর্তুগালের রক্ষণ লক্ষ্য করে বেশ কিছু আক্রমণ সাজালেও সেগুলোকে গোলে পরিণত করতে পারেননি ডাচরা।

২০১৬ সালে পর্তুগাল ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের তিন বছরের মধ্যে আরেকটি আন্তর্জাতিক ট্রফি জয়ের স্বাদ পেল। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হল আরেকটি পালক।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here