ওমান সাগরে দু’টি তেলবাহী ট্যাংকারে রহস্যজনক হামলায় ইরানকে জড়িয়ে আমেরিকা যে দাবি করেছে তা টোকিও প্রত্যাখ্যান করেছে বলে জাপানের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

জাপানি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে দেশটির কায়দো সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, তেলবাহী ট্যাংকারে হামলার বিষয়ে আরো অধিকতর তদন্তের জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে টোকিও। এছাড়া, জাপান জানিয়েছে, হামলার পক্ষে প্রমাণ উপস্থাপন হিসেবে আমেরিকা যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে তা অস্পষ্ট এবং এটাকে গ্রহণযোগ্য প্রমাণ হিসেবে গ্রহণ করা যায় না। একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আমেরিকা হামলার বিষয়ে ধারণা নির্ভর যে দলিল প্রমাণ উপস্থাপন করেছে তাতে জাপান সরকার সন্তোষ্ট নয়।

গত শুক্রবার জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কানো মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনালাপে তেল ট্যাংকারে হামলার বিষয়ে  ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে আরো দলিল প্রমাণ হাজির করার আহ্বান জানিয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার সকালে ওমান উপসাগরে দুটি তেলবাহী ট্যাংকারে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়। ট্যাংকার দুটির একটি মার্শাল আইল্যান্ডের পতাকাবাহী ফ্রন্ট অ্যালটেয়ার এবং অপরটি পানামার পতাকাবাহী কোকুকা কারেজিয়াস। ফ্রন্ট অ্যালটেয়ার নরওয়ের মালিকানাধীন আর কোকুকা জাপানের মালিকানাধীন।হামলার পরপরই নিকটবর্তী দেশগুলোতে বিপদ সংকেত পাঠানো হয় এবং দ্রতই ইরানি উদ্ধারকারী জাহাজ হামলার শিকার জাহাজ দুটি থেকে সব ক্রুকে উদ্ধার করে। ঘটনার পরপরই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানকে দায়ী করেন এবং সৌদি আরব ও ব্রিটেন তাতে সমর্থন দেয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও গত শুক্রবার একই অভিযোগ করেছেন। তবে ইরানও কঠোর ভাষায় এ হামলায় নিজের জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here