দেশের ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলে; বিশেষ করে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে (ইউএই) বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘আমরা দেশে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করছি। আপনাদের পছন্দমতো বিনিয়োগ নিয়ে আসুন। আমরা আপনাদের বিনিয়োগকে স্বাগত জানাচ্ছি। আপনাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধাও দিচ্ছি।’

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর সংসদ ভবনের দপ্তরে ইউএই -এর খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মরিয়ম আলমেহেরির সাথে এক সাক্ষাতে শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

সাক্ষাৎ শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, সফররত ইউএই প্রতিমন্ত্রী কৃষিখাতে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

এ সময় বাংলাদেশ থেকে উদ্বৃত্ত খাদ্য আমদানির ব্যাপারেও সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিমন্ত্রী আগ্রহ দেখিয়েছেন বলে জানান প্রেস সচিব।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের খাদ্যশস্যের বৈচিত্র্য, এক বছরে তিনবার চাষের প্রক্রিয়া রূপান্তর ও কৃষি গবেষণায় বিনিয়োগ বৃদ্ধির ফলে খাদ্য উৎপাদন বাড়ার গল্প সংক্ষিপ্তভাবে বর্ণনা করেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেশের গবেষকরা লবণাক্ততা, বন্যা ও খরা সহিষ্ণু ধান উদ্ভাবন করেছেন। এগুলো দেশকে খাদ্যে উদ্বৃত্ত হয়ে উঠতে সাহায্য করছে।

এ সময় অন্যদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, মুখ্য সচিব এম নজিবুর রহমান ও সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মাদ জয়নুল আবেদিন উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here