রোহিঙ্গা সমস্যার জন্য অন্যদের সঙ্গে জাতিসংঘকেও দায়ী করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। জাতিসংঘকে দায়ী করে তিনি বলেন, ‘তারা অনেক কিছু গোপন রেখেছে এবং নিশ্চয়ই তারা এর জন্য দায়ী।’

বৃহস্পতিবার ঢাকার বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজে জেনেভা কনভেনশনের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক সেমিনারের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ইন্টারন্যাশনাল কমিটি ফর রেড ক্রস এবং ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ডিকাব) এই সেমিনারের আয়োজন করে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘের পদ্ধতিগত ভুল ছিল বলে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, ‘এই দুর্ঘটনা একদিনে হয়নি। অনেকদিন ধরে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে হিংসা-বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে। জাতিসংঘ সেই বিষয়ে সজাগ হয়নি।’

দুনিয়া থেকে সংঘাত দূর করতে মানসিকতা তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘ সেটাতে বিশ্বাস করে, কিন্তু সেই অনুপাতে কাজ করে না।’

মন্ত্রী বলেন, দুর্ঘটনা হওয়ার পর জাতিসংঘ কিছু বক্তব্য দিয়েছে, কিন্তু এর বেশিরভাগ বাংলাদেশের জন্য।

তিনি বলেন, ‘যেখানে তাদের কাজ করার দরকার, সেখানে তাদের অবস্থান দুর্বল।’

জেনেভা কনভেনশন আইন লঙ্ঘিত হয়েছে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, ‘অনেকক্ষেত্রে যারাই আইন তৈরি করেছে, তাদের অনেকে যখন মানবতা লঙ্ঘিত হয়, তখন মুখ ফিরিয়ে নেয়। এর ফলে আইনগুলো দুর্বল হয়ে যাচ্ছে।’

মিয়ানমারে যারা নিরীহ লোক, যারা যুদ্ধে কোনোভাবেই জড়িত নয়, তাদের মানবিকতা লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে জানান তিনি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here