ভারতের হিমাচল প্রদেশে একটি বাস খাদে পড়ে অন্তত ৪৪ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহতও হয়েছেন অনেক।বৃহস্পতিবার প্রদেশের কুল্লু জেলায় দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

কর্মকর্তারা জানান, ওই বাসে ৬০ জন যাত্রী ছিলো। কয়েকজন ছাদেও বসেছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গভীর খাদে পড়ে যায়। এই ঘটনায় গভীর দুঃখপ্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার একটি বাস হিমাচলপ্রদেশের বানজার থেকে গাদাগুশানি এলাকায় যাচ্ছিল। কিছুটা যাওয়ার পর বিকেল চারটার সময় তহশীল বাজার এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। তারপর সোজা গিয়ে পড়ে ৫০০ মিটার নিচে থাকা খাদে। বিষয়টি দেখতে পেয়ে ছুটে এসে উদ্ধারকাজ শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকাজে যোগ দেন প্রশাসনের কর্মীরা। ঘটনাস্থল থেকে ১২ জনের বেশি নারী, সাতজন শিশু, পাঁচ থেকে ছয়জন কিশোরী ও ১০ জন যুবককে উদ্ধার করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাদের। প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকাজ তদারকি করেন।

কুল্লুর পুলিশ সুপার শালিনী অগ্নিহোত্রী জানান, বানজার এলাকা থেকে ৬০ জনের বেশি যাত্রী নিয়ে গাদাগুশানি যাচ্ছিল বাসটি। কিছুটা দূর যাওয়ার পরে আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়।

ভারতে প্রায়ই এমন সড়ক দুর্ঘটনায় হয়ে থাকে। ২০০৯ সাল থকে ২০১৮ পর্যন্ত হিমাচল প্রদেশে ৩০ হাজারেরও বশি দুর্ঘটনা হয়েছ। সেসময় অন্তত ১১ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। আহত হয়েছন আরও ৫৪ হাজার মানুষ

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here