নাটকীয়তা ও অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেট। ২২ গজে ব্যাট-বলের এই লড়াই যে কতটা অনিশ্চিত খেলা সেটাই আরেকবার প্রমাণ হলো ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচে। চলমান ওয়ানডে বিশ্বকাপে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে ইংলিশদের ২০ রানে হারিয়ে রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়েছে লঙ্কানরা।
শুক্রবার (২১ জুন) ২৩২ রানের পুঁজি নিয়েও ইংল্যান্ডকে রুখে দেয় বিশ্বকাপের এবারের আসরে আন্ডারডগ হিসেবে তকমা পাওয়া শ্রীলঙ্কা। ইংলিশদের হারিয়ে শেষ চারের হিসাব-নিকাশ নিয়ে নতুন করে ভাবতে বাধ্য করেছে লঙ্কানরা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার এই অবিশ্বাস্য জয়ের মূল কারিগর অবশ্য লাসিথ মালিঙ্গা।
এদিন ১০ ওভারে এক মেডেনসহ মাত্র ৪৩ রানের বিনিময়ে ইংলিশদের চার উইকেট তুলে নেন মালিঙ্গা। এর মধ্যে ছিল দুই ওপেনার জেমস ভিন্স, জনি বেয়ারস্টোসহ জো রুট ও জস বাটলারের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। ডানহাতি এই পেসারের আগুন ঝরা বোলিংয়েই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ইংলিশরা।
অথচ বিশ্বকাপ স্কোয়াডে মালিঙ্গাকে অর্ন্তভূক্ত করার পর বয়স ও ভুঁড়ির জন্য ভক্ত-সমর্থকদের বিদ্রূপের মুখে পর্যন্ত পড়তে হয়েছিল ৩৫ বছর বয়সী এই পেসারকে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মালিঙ্গার আগুন ঝরা বোলিংয়ের পর যেন সেটাই মনে করিয়ে দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়াবর্ধনে।
ইংলিশদের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন জয়াবর্ধনে। ব্যক্তিগত ইনস্টগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে তার পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, খালি গায়ে শ্রীলঙ্কান ড্রেসিংরুমে হাঁটছেন মালিঙ্গা। কেবল তাই নয়; ছবিতে অভিজ্ঞ এই পেসারের স্থুলকার ভুঁড়িটাও বেশ ভালোভাবে দেখা যাচ্ছিল।
ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো বলছে, জয়াবর্ধনের পোস্ট করা ছবিটি সমালোচকদের কটূক্তির জবাব। সাবেক এই লঙ্কান অধিনায়কের পোস্টটি টুইট করে ক্রিকইনফো লিখেছে, ‘বিদ্বেষ পোষণকারীদের জন্য মাহেলা জয়াবর্ধনের জবাব। প্রচ্ছদ দেখে বইয়ের ভেতরে কী আছে তা আগাম বলে দিও না।’
লঙ্কানদের বিশ্বকাপ ঘোষণার পর থেকে মালিঙ্গার সমালোচনায় সরব ছিলেন দেশটির ভক্ত-সমর্থকরা। তাদের সমালোচনায় নতুন মাত্র যোগ করে মালিঙ্গার খালি গায়ের এই ছবিটি। গেল সপ্তাহে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ছবিটি পোস্ট করে নতুন করে অভিজ্ঞ এই লঙ্কান পেসারের সমালোচনায় মেতে ওঠেন তারা। তাদের দাবি ছিল, মালিঙ্গা বিশ্বকাপে খেলার জন্য ফিট নন, তার বয়স হয়ে গেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here