মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আবার দাবি করেছেন, ওয়াশিংটন ইরানের সঙ্গে ‘কোনো পূর্বশর্ত ছাড়াই’ আলোচনায় বসতে চায়। তিনি রোববার রাতে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর শুরু করার আগে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা ইরানের সঙ্গে কোনো পূর্বশর্ত ছাড়া আলোচনায় বসতে প্রস্তুত এবং তারা জানে আমাদেরকে কোথায় পাওয়া যাবে।”

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও শুক্রবার দাবি করেছিলেন, তার প্রশাসন ইরানের সঙ্গে নিঃশর্ত আলোচনায় বসতে চায়। এ নিয়ে ট্রাম্প ও পম্পেও গত কয়েক মাসে অসংখ্যবার ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করলেন।

তারা এমন সময় ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করছেন যখন ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছর সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে পরমাণু সমঝোতা লঙ্ঘন করে ইরানের ওপর একতরফা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন। তেহরান আমেরিকার এ আগ্রহের জবাবে ওয়াশিংটনকে পরিষ্কার ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, হুমকি ও চাপের মোকাবিলায় দেশটি আলোচনায় বসে না। এ ছাড়া, আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতায় ফিরে এসে আগে নিজের সদিচ্ছার প্রমাণ দিতে হবে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী গত ১৩ জুন তেহরান সফরকারী জাপানি প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবেকে বলেন, আমেরিকাকে বিন্দুমাত্র বিশ্বাস করে না তেহরান এবং পরমাণু সমঝোতার আলোচনায় বসে যে তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে তার পুনরাবৃত্তিও করবে না ইরান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here