ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রথম পাঁচ বছরের মেয়াদ ‘সুপার এমার্জেন্সি’র একটা পর্ব ছিল বলে মন্তব্য করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করে মমতা টুইট করেন। খবর এনডিটিভি।

২৫ জুন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দেশ জুড়ে ‘এমার্জেন্সি’ বা ‘জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করেছিলেন। ১৯৭৫ থেকে ১৯৭৭ সালের ২১ মাস সময় ছিল এই জরুরি অবস্থার অন্তর্গত। সেই ‘জরুরি অবস্থা’র ৪৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে একটি টুইট করেন মমতা।

তিনি লেখেন, আজ ১৯৭৫ সালে ঘোষিত জরুরি অবস্থার বর্ষপূর্তি। গত পাঁচ বছর ধরে দেশ চলেছে ‘সুপার এমার্জেন্সি’র মধ্যে দিয়ে। ইতিহাস থেকে আমাদের অবশ্যই শিক্ষা নেওয়া উচিত এবং দেশের গণতান্ত্রিক কাঠামোকে রক্ষার জন্য লড়াই করতে হবে।

বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকেও যাননি। তার আগে লোকসভায় মোদির প্রত্যাবর্তনের পরে শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানেও অনুপস্থিত থাকেন তিনি। এমনকি, ১৫ জুন নীতি আয়োগের বৈঠকেও যাননি তিনি।

জরুরি অবস্থা নিয়ে বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রীও। মোদি জানিয়েছেন, দেশ স্যালুট করে তাদের যারা ‘প্রচণ্ড ও নির্ভীক’ ভাবে জরুরি অবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here