বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের আশা বাঁচাতেই প্রতিটা ম্যাচে জেতা চাই বাংলাদেশের। কিন্তু সেটা করলেও কেবল হচ্ছে না। কামনা করতে হবে অন্যদের হার। বিশেষ করে ইংল্যান্ড বা অস্ট্রেলিয়া যদি তাদের বাকি সব ম্যাচ হেরে যায় তাহলে নিজেদের কাজটা করেই সেরা চারে পা পড়বে মাশরাফি বিন মর্তুজার দলের। গানিতিতিক হিসাবেও ব্যাপারটা বেশ জটিল। আফগানিস্তানকে হারিয়ে ম্যাচ সেরা সাকিব আল হাসান বললেন, খেলাটা ক্রিকেট বলেই যেকোনো কিছুই হতে পারে।

আফগানিস্তানকে ৬২ রানে হারিয়ে পরদিন বাংলাদেশ ছুটবে বার্মিংহামে। সেখানে সপ্তাহখানেকের লম্বা বিরতির পর ভারতের বিপক্ষে কঠিন ম্যাচ। হাতে আর দুই ম্যাচ। সেমির স্বপ্ন কি উঁকি দিচ্ছে? সাকিব ফিরলেন বাস্তবে, ‘ইংল্যান্ডকে তিন খেলার হারতে হবে। আমাদের বাকি দুটো জিততে হবে। এটা কঠিন। গাণিতিকভাবেও কঠিন। তবে ক্রিকেটে যেকোনো কিছুই হতে পারে। আমি আগেও বললাম কঠিন হলেও পরের দুটো খেলা জেতা সম্ভব। অন্যদের খেলা কি হচ্ছে দেখতে হবে। কিন্তু তার আগে তো নিজেদের কাজটা করা জরুরী।’

২ জুলাই ভারত ও ৫ জুলাই পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের বাকি দুই ম্যাচ। এরমধ্যে ভারতের বিপক্ষে ঠিক পরের ম্যাচটাই সবচেয়ে কঠিন ভাবছেন সাকিব, কেবল অভিজ্ঞতা দিয়েই সেই পথ পাড়ি দেওয়া সহজ মনে হচ্ছে না তার,  ‘আরও দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ আছে। ভারতের সঙ্গে পরের ম্যাচ অনেক কঠিন। অভিজ্ঞতা আছে কিন্তু অভিজ্ঞতা দিয়েই সব হয় না। আমাদের ভারতকে হারাতে সেরাটা ঢেলে দিতে হবে। তাদের হারানো সহজ না। বিশ্বমানের সব বোলার, ব্যাটসম্যান আছে ওদের। আমাদেরকে সেরা খেলাটা খেলতে হবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here