চার বছর পর আবারো কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি ব্রাজিল ও প্যারাগুয়ে। ২০১৬ সালের শতবর্ষী বিশেষ কোপা আমেরিকা আসরে ব্রাজিল গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ায় দেখা হয়নি প্যারাগুয়ের সঙ্গে। এবারের আসরে দুর্দান্ত ছন্দে সেলেসাও শিবির। পোর্তো অ্যালেগ্রিতে শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ছয়টায় শুরু ম্যচটি।

ব্রাজিল নেইমারের অভাবটা বুঝতে দিচ্ছেনা। আলভেজের নেতৃত্বে দারুন খেলছে তারা। তবু প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ক্যাসিমিরোর অভাব সহজে দূর হবে না। গত বিশ্বকাপেও কোয়ার্টার ফাইনালে ক্যাসিমিরোকে ছাড়া খেলতে নেমে ডিফেন্স ও মিডফিল্ডে বেলজিয়ামের কাছে হোঁচট খেয়েছিলো তিতের শিষ্যরা। ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে আবারো ফার্নান্দিনহোর উপর ভরসা রাখতে হচ্ছে। বেলজিয়ামের বিপক্ষে বিশ্বকাপে ফার্নান্দিনহোর আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়েছিল তারা।

প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ৪-২৩-১ ফরম্যাশনে খেলতে চায় আটবারের কোপা আমেরিকা জয়ী দলটি। শেষ তিনবার কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে উঠতে পারেনি ব্রাজিল। গত আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়েছিল পেরুর কাছে হেরে। এবার পেরুকে গ্রুপ পর্বে পেয়ে তারই শোধ নিল ফিরমিনোরা। ব্রাজিলের কাছে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হয় পেরু।

কোয়ার্টার ফাইনালে প্যারাগুয়ের সঙ্গেও প্রতিশোধের জন্য মাঠে নামবে জেসুস, আলভেজরা। ২০১১ ও ২০১৫ দুই আসরে কোয়ার্টার ফাইনালে প্যারাগুয়ের কাছে হারে ব্রাজিল। দুইবারই ম্যাচের নিষ্পত্তি গড়ায় টাইব্রেকারে। এখন পর্যন্ত ৮০ বার মুখোমুখি হয়েছে ব্রাজিল ও প্যারাগুয়ে। এর মধ্যে ব্রাজিল জিতেছে ৪৮টি ম্যাচ, ড্র হয়েছে ১৮টি ও হেরেছে ১৩টিতে।

গত কয়েক আসরের চেয়ে অনেক শক্তিশালি ব্রাজিল শিবির। ‘এ’ গ্রুপ থেকে দাপটের সঙ্গে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। বলিভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয় টুর্নামেন্ট শুরু করে তিতের শিষ্যরা পরের ম্যাচে ভেনেজুয়েলার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে। তৃতীয় ম্যাচে পেরুকে হারিয়ে সাত পয়েন্ট নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে তারা।

অপরদিকে, আট দলের মধ্যে একমাত্র প্যারাগুয়ে কোন জয় না পেয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। প্রতিপক্ষ ব্রাজিল এ মৌসুমে কোন গোল হজম করেনি। তাই প্যারাগুয়ের জন্য জয় পাওয়াটা সহজ নয়। ২০১১ সালের ফাইনালিস্ট দল হলেও এবার প্যারাগুয়ে ছন্দে নেই। ‘বি’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে অপেক্ষাকৃত দূর্বল কাতারের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে প্যারাগুয়ে। পরের ম্যাচে আর্জেন্টিনার সঙ্গে ড্র করে ১-১ ব্যবধানে। তৃতীয় ম্যাচে একমাত্র গোলে তারা হেরে যায় কলম্বিয়ার কাছে। ১৯৯৫ সালে পর এ প্রথম মাত্র দুই পয়েন্ট পেয়েও শেষ আটে উঠেছে প্যারাগুয়ে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here