একথা হয়তো আমাদের কারোরই অজানা নেই যে ছোট মাছ খেলে দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটে। কিন্তু এই খাবারটি ছাড়াও যে আরও বেশ কিছু খাবার রয়েছে, যা নানাবিধ চোখের সমস্যাকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে, সে বিষয়ে কি জানা আছে?

১. সবুজ শাক-সবজি
আজকের প্রজন্মের শাক-সবজির প্রতি আজব এক উদাসীনতা রয়েছে।

তারা কোনও মতেই এমন খাবার মুখে তুলতে চান না। কিন্তু শাক না খেলে যে চোখের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটবে না, আর এমনটা যদি না হয়, তাহলে প্রথমে চশমা, তারপর যত বয়স বাড়তে থাকবে, তত চোখের আলো যে কমতে থাকবে বন্ধুরা! তাই তো প্রতিদিন নিয়ম করে পাংল শাক, ব্রকলি অথবা লেটুসের মতো শাক খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন চোখ নিয়ে আর চিন্তায় থাকতে হবে না। কারণ এই ধরনের শাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং জিয়াক্সেনথিন নামে বেশ কিছু উপকারি উপাদান থাকে, যা ছানি এবং আরও একাধিক চোখের রোগকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

২. ডিম
আজকাল কোনও এক অজানা কারণে ডিম খাওয়ার বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করা হয়েছে। তবু একথা কোনোভাবেই অস্বীকার করা যাবে না যে প্রতিদিন একটা করে ডিম খেলে শরীরে লুটেইন, জিয়াক্সেনথিন এবং জিঙ্কের পরিমাণ বাড়তে শুরু করে। এই উপাদানগুলি চোখের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে দারুন ভাবে সাহায্য করে থাকে।

৩. সাইট্রাস ফল
মৌসাম্বি লেবু, কমলা লেবু এবং পাতি লেবু বেশি করে খাওয়া শুরু করুন। এই সব ফলে প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন সি রয়েছে।

এই ভিটামিনটি ছানি প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা নেয়। সেই সঙ্গে দৃষ্টিশক্তিরও উন্নতি ঘটায়। বাদাম এতে উপস্থিত ভিটামিন ই ম্যাকুলার ডিজেনারেশন বা চোখের স্বাস্থ্যের অবনতি আটকাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই যদি চশমা ব্যবহার করতে না চান, তাহলে আজ থেকেই প্রতিদিনের ডায়েটে বাদামকে অন্তর্ভুক্ত করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

৫. মাছ
ছোট মাছ তো বটেই সেই সঙ্গে ম্যাকারেল এবং টুনার মতো সামুদ্রিক মাছও খেতে হবে। আসলে সামুদ্রিক মাছে উপস্থিত ফ্যাটি এসিড দৃষ্টিশক্তির উন্নতিতে সাহায্য করে। তাই মাছ প্রিয় বাঙালি আপনাদের এই চিরকালীন ভালবাসা থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবেন না যেন। তাহলেই বিপদ!

৬. ঝিনুক
জানি জানি অনেকেই এটা খান না। কিন্তু যার খান তারা জেনে রাখুন দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঝিনুকের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

৭. ভূট্টা
এতে প্রচুর মাত্রায় লুটেইন এবং জিয়াক্সেনথিন রয়েছে। আর একথা তো সকলেই ইতিমধ্যেই জেনে ফেলেছেন যে এই দুটি উপাদান হল চোখের বেস্ট ফ্রেন্ড। তাই ভুট্টা যত বেশি বেশি করে খাবেন, তত চশমার সঙ্গে আপনার দূরত্ব বাড়তে শুরু করবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here